এবার পুরীর মন্দিরে ভক্তদের জন্য স্পেশাল ড্রেস কোড! এই নিয়ম না মানলে প্রবেশ নিষিদ্ধ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : পুরীর জগন্নাথ মন্দির সারা পৃথিবীতে বিখ্যাত। প্রতিদিন হাজার হাজার ভক্ত পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে আসেন পুজো দিতে। দেশ তো বটেই, বিদেশ থেকেও বহু ভক্ত জগন্নাথ-বলরাম-সুভদ্রাকে দর্শনের জন্য আসেন এই মন্দিরে। তবে এবার থেকে পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে আগত দর্শনার্থীদের জন্য চালু হল বিশেষ ড্রেস কোড।

   

এই ড্রেস কোড না মানলে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না মন্দিরে। কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে এবার থেকে পুরীর জগন্নাথ মন্দিরে শর্টস, ছিঁড়ে যাওয়া জিন্স এবং স্কার্টের মতো পোশাক পরে প্রবেশ করা যাবে না। কর্তৃপক্ষের ভাষায় এই ধরনের পোশাককে ‘অশালীন’ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। মন্দিরে আগত দর্শনার্থীদের ওপর নজর রাখবে মন্দিরের পরিচারক ও পুলিশ প্রশাসন।

আরোও পড়ুন : রঙ-বেরঙের পাখনা মেলে ঘুরে বেড়াচ্ছে ইতিউতি, ময়ূরময় এই গ্রাম দেখতে ভিড় জমাচ্ছেন আট থেকে আশি

এই ধরনের পোশাক পরে প্রবেশ করা যাবে না মূল মন্দিরে। মন্দির প্রশাসনের প্রধান প্রশাসক রঞ্জন কুমার দাস বলেছেন, ঐতিহ্যবাহী পোশাক যেমন ট্রাউজার প্যান্ট, চুড়িদার, সালোয়ার কামিজ এবং ধুতি পরে ভক্তরা মন্দিরে প্রবেশ করতে পারবেন। তবে অশালীন পোশাক পরে মন্দিরে প্রবেশ করা যাবে না। দেশের বিভিন্ন মন্দিরে এই ধরনের ড্রেস কোড চালু রয়েছে।

Puri Temple

এই বিষয়ে মন্দিরে নজরদারি করবে পুলিশ ও মন্দিরের সেবকরা। মন্দিরের পরিচারকদের জন্য মন্দির কর্তৃপক্ষ ২০২১ সালে নির্দিষ্ট ড্রেস কোড ঠিক করে দেয়। এর দু’বছর পর ভক্তদের জন্য চালু হল নতুন ড্রেস কোড। এখন সেবাকারীরা ধুতি, তোয়ালে এবং পাট্টা পরেন।  মন্দিরের সেবাকারীদের একটি নেতৃস্থানীয় সংস্থা বলছে, অনেকেই মন্দিরে শর্টস, ছেঁড়া জিন্স পরে চলে আসেন। এই ধরনের পোশাক ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত আনে।