হামলার সময় বাড়ির ভেতরই ঘাপটি মেরে ছিলেন শাহজাহান! ঠিক কি ঘটেছিল গতকাল? সবটা জানাল ED

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ তৃণমূল নেতা শেখ শাহজাহান (Sheikh Shahjahan) এই এক নামেই এখন তোলপাড় রাজ্য-রাজনীতি। রেশন দুর্নীতির তদন্ত করতে গিয়ে এই শাসকদলের নেতার বাড়ি গিয়ে গতকাল আক্রান্ত খোদ ইডি। শুক্রবার সকালে শেখ শাহজাহানের বাড়িতে ইডির (Enforcement Directorates) অভিযান ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে উত্তর ২৪ পরগনার (North 24 parganas) সন্দেশখালি।

   

দুর্নীতির তদন্তে তৃণমূল নেতার বাড়িতে গিয়ে বারংবার ডাকাডাকি সত্ত্বে সাড়া মেলেনি কারও। প্রায় এক ঘণ্টা অপেক্ষার পর কেন্দ্রীয় বাহিনী তল্লাশির জন্য বাড়ির তালা ভাঙার কাজ শুরু করে। আর তাতেই তাদের ওপর চড়াও হয় উত্তপ্ত জনতা। উত্তর ২৪ পরগনা জেলা পরিষদের মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ কর্মাধ্যক্ষের শেখ শাহজাহানের অনুগামীরা ভীড় করে ফেলে গোটা এলাকায়।

হাজার হাজার তৃণমূল কর্মী-সমর্থক শাহজাহানের বাড়ির সামনে জড়ো হন। ইডি হানার বিরুদ্ধে শুরু হয় বিক্ষোভ। এখানেই শেষ নয়, ইডির আধিকারিকদের মারধরও করেন তৃণমূল নেতার অনুগামীরা। ভাঙচুর চলে ইডি আধিকারিকদের গাড়ি। এরপর একদম ধাওয়া করে ইডি আধিকারিকদের এলাকা ছাড়া করেন কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী। এই এত্ত সব ঘটনার সময় একবারও দেখা মেলেনি তৃণমূলের দাপুটে নেতার। ঘটনার সময় কোথায় ছিলেন সন্দেশখালির বাহুবলি? এই প্রশ্নই যখন উঠছে তখন মারাত্মক দাবি করল ইডি।

শাহজাহান শেখের বাড়ির দরজায় যখন কড়া নাড়ছে ইডি, তখন বাড়ির ভিতরেই ঘাপটি মেরে বসেছিলেন তৃণমূল নেতা। দরজা তো খোলেনইনি উল্টে ইডিকে আক্রমণের জন্য বাড়ির ভেতর থেকে উত্তপ্ত জনতাকে উসকানি দিয়েছেন নেতা। শুক্রবার রাতে প্রেস বিবৃতি জারি করে এমনই বিস্ফোরক অভিযোগ সামনে আনে ইডি।

আরও পড়ুন: ‘৭ দিনের মধ্যেই…’, শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে বিরাট ঘোষণা করে দিলেন দিলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু

শুক্রবার রাতে এক্স হ্যান্ডলে একটি পোস্ট ও একটি প্রেস বিবৃতিও সামনে আনে ইডি। আধিকারিকদের ওপর হামলার ওপর সরকারি ভাবে মুখ খুলল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। ইডি জানায়, রেশন দুর্নীতি মামলায় ধৃত মন্ত্রী জ্যোতিপ্ৰিয় মল্লিকের সূত্র ধরে শাহজাহানের খোঁজ পান তারা। এরপর শুক্রবার তার ঠিকানায় পৌঁছে যায় ইডি। তৃণমূল নেতার বাড়িতে গিয়ে দেখে বাড়ির দরজা ভিতর থেকে বন্ধ। বহুক্ষণ করা নেড়ে, ডাকাডাকি করেও তৃণমূল নেতা বা তার পরিবারের কোনও সদস্যের সাড়া পাওয়া যায়নি। ওদিকে সেই একই সময়ের শেখ শাহজাহানের মোবাইল টাওয়ার ট্রাক করে দেখা যায়, তিনি নিজের বাড়িতেই রয়েছেন।

ed attacked by tmc workers

ইডির কথায়, কোনও উপায় না পেয়ে তারা বাড়ির তালা ভাঙতে শুরু করে। তবে সেই কাজ শুরু করতে না করতেই হাজারের মত সশস্ত্র গ্রামবাসী তাদের ঘিরে ফেলে। ইট-পাথর-লাঠি নিয়ে সরাসরি হামলা চালানো হয় তাদের অধিকারিকদের ওপর। ক্রমেই গ্রামবাসীরা আরও বেশি ক্ষুব্ধ হয়ে উঠছিল। ইডি জানিয়েছে তাদের প্রাণেও মেরে ফেলা হতে পারতো। তাই অসম্পূর্ণ অবস্থায় নিজের কাজ ফেলে তাদের ওই স্থান থেকে পালিয়ে যেতে হয়। ইডি জানিয়েছে হামলার ঘটনায় তাদের একাধিক অফিসার গুরুতর চোট পেয়েছে। এদের মধ্যে তিন জন হাসপাতালেও ভর্তি রয়েছেন।

বিবৃতি দিয়ে ইডি আরও জানিয়েছে যে, হামলার পর তাদের টাকার ব্যাগ, নগদ টাকা, মোবাইল, ল্যাপটপ – ব্যক্তিগত জিনিসপত্রও ছিনতাই করেন গ্রামবাসীরা। গোটা এই এই হামলার পেছনে তৃণমূল নেতা শাহজাহান এবং তার ঘনিষ্ঠরাদের হাত রয়েছে বলে সন্দেহ ইডির।