নির্বাচনী বন্ড থেকে ১৬১০ কোটি লক্ষী লাভ করে দ্বিতীয় স্থানে তৃণমূল! ফার্স্ট কোন দল?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ নির্বাচনী বন্ড তথা ইলেক্টোরাল বন্ডে (Electoral Bond) কত টাকা পেয়েছে কোন দল? লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালেই প্রকাশ্যে এল সেই তথ্য। কোন রাজনৈতিক দলের কতখানি লক্ষ্মীলাভ হল? তৃণমূল, বিজেপি নাকি কংগ্রেস? শীর্ষস্থান আদায় করলো কে? চলুন ঝটপট দেখে নেওয়া যাক সেই তথ্য।

   

SBI-এর দেওয়া তথ্যানুসারে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে জাতীয় নির্বাচন কমিশন ওয়েবসাইটে নির্বাচনী বন্ড সংক্রান্ত তথ্য আপলোড করা হয়েছে। সেখান থেকে জানা যাচ্ছে, ২০১৯ সালের এপ্রিল মাস থেকে ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাস অবধি নির্বাচনী বন্ড পাওয়ার লিস্টে সমগ্র দেশে দ্বিতীয় স্থান আদায় করেছে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)। জানা যাচ্ছে, একুশের বিধানসভা ভোটে জয়ী হওয়ার পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের অনুদান ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে।

জাতীয় নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, ২০১৯ সালের এপ্রিল মাস থেকে ২০২৪ সালের জানুয়ারি মাস অবধি প্রায় ১৬১০ কোটি টাকার নির্বাচনী বন্ড সংগ্রহ করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। তালিকার শীর্ষে রয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি তথা বিজেপির (BJP) নাম। অপরদিকে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে কংগ্রেস (Congress)।

আরও পড়ুনঃ রেশন দুর্নীতি মামলায় এবার আসরে কলকাতা পুলিশ! আজই লালবাজারে তথ্য জমার নির্দেশ

নির্বাচনী বন্ড থেকে কংগ্রেসের মতো সর্বভারতীয় দলের চেয়েও বেশি লক্ষ্মীলাভ হয়েছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলের। তৃণমূল যেখানে নির্বাচনী বন্ড থেকে ঘরে তুলেছে প্রায় ১৬১০ কোটি টাকা, কংগ্রেসের সেখানে লক্ষ্মীলাভ হয়েছে ১৪২২ কোটি টাকা। অপরদিকে শীর্ষ স্থানে থাকা বিজেপি ঘরে তুলেছে প্রায় ৬০৬১ কোটি টাকা।

electoral bond data

শীর্ষে থাকা তিন দলের পাশাপাশি আঞ্চলিক আরও বেশ কিছু দল নির্বাচনী বন্ড থেকে ভালো টাকা ঘরে তুলেছে। হাজার কোটির ‘দলে’ নাম রয়েছে তেলেঙ্গানার কে চন্দ্রশেখর রাওয়ের ভারত রাষ্ট্র সমিতি। ইলেক্টোরাল বন্ড থেকে এই দল প্রায় ১২১৫ কোটি টাকা ঘরে তুলতে সক্ষম হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের পড়শি রাজ্য ওড়িশাও কিন্তু পিছিয়ে নেই। নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল নির্বাচনী বন্ড থেকে ৭৭৬ কোটি টাকা পেয়েছে। এই দলগুলি ছাড়া শিবসেনা, আরজেডি, সমাজবাদী পার্টি থেকে শুরু করে আম আদমি পার্টি, তেলেগু দেশম পার্টি, ডিএমকে- নির্বাচনী বন্ড থেকে কমবেশি লক্ষ্মীলাভ হয়েছে প্রত্যেকেরই।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর