বাড়ি থেকে উদ্ধার লক্ষ লক্ষ টাকা! এবার রাজ্যের আরেক মন্ত্রীকে তলব ED-র, শোরগোল রাজ্যে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ লোকসভা নির্বাচন আসন্ন। তার আগেই অ্যাকশনে ইডি। শুক্রবার সকালে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষুদ্র এবং কুটিরশিল্প মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহার (Chandranath Sinha) বাড়িতে হানা দেয় কেন্দ্রীয় এজেন্সি। জানা যাচ্ছে, নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় উঠে এসেছে তাঁর নাম। মন্ত্রীর বাড়ি থেকে প্রায় ৪১ লাখ টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে ইডি। এবার জানা গেল, তাঁকে তলব করেছে ইডি (ED)।

   

শুক্রবার সকালে চন্দ্রনাথ সিনহার বোলপুরের বাড়িতে হানা দেন ইডি আধিকারিকরা। জানা যাচ্ছে, সেই তল্লাশি অভিযানে ৪১ লাখ টাকার পাশাপাশি চন্দ্রনাথবাবুর একটি মোবাইল ফোনও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সেখান থেকে গোয়েন্দাদের হাতে নানান তথ্য হাতে এসেছে বলে খবর। এবার সেই বিষয়েই বিস্তারিত জানতে রাজ্যের ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প মন্ত্রীকে তলব করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। চলতি সপ্তাহেই তাঁকে ইডির (Enforcement Directorate) সামনে উপস্থিত হতে হবে বলে খবর।

গত শুক্রবার ইডি আধিকারিকরা যখন চন্দ্রনাথবাবুর বাড়িতে উপস্থিত হয়েছিলেন তখন তিনি বাড়িতে ছিলেন না। এরপর তাঁকে গোয়েন্দারা ডেকে পাঠান বলে খবর। চন্দ্রনাথবাবু বাড়ি আসার পর তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। মন্ত্রী জানিয়েছিলেন, তিনি কেন্দ্রীয় এজেন্সির সঙ্গে সবরকম সহায়তা করেছেন। তবে এখন জানা যাচ্ছে, চন্দ্রনাথবাবু এবং তাঁর পরিবারের থেকে সদুত্তর না মেলায় তলব করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট।

আরও পড়ুনঃ রেশন দুর্নীতির মূল ‘মাথা’কে? মোক্ষম প্ল্যান CBI-এর! এবার শাহজাহানকে দিয়েই…

প্রসঙ্গত, রাজ্যের ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প মন্ত্রী চন্দ্রনাথ সিনহার নাম এতদিন অবধি তেমন কোনও দুর্নীতিতে জড়ায়নি। তাই স্বাভাবিকভাবেই শুক্রবার যখন তাঁর বাড়িতে ইডি হানার খবর সামনে আসে তখন চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। প্রথমে ইডি হানার কারণ সামনে না এলেও পরে জানা যায় নিয়োগ দুর্নীতিতে নাম জড়িয়েছে মন্ত্রীর।

enforcement directorate ed raid in tmc mla chandranath sinha house regarding recruitment scam case

নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় ধৃত কুন্তল ঘোষের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হওয়া একটি ডায়েরিতে চন্দ্রনাথবাবুর নাম পাওয়া গিয়েছে বলে খব। নিয়োগ দুর্নীতিতে ‘মিডলম্যান’ হিসেবে উঠে এসেছিল কুন্তলের নাম। জানা যাচ্ছে, কমপক্ষে ১০০ জন চাকরিপ্রার্থীকে তাঁর কাছে পাঠিয়েছিলেন বোলপুর নিবাসী এই মন্ত্রী। চাকরির বিনিময়ে তাঁদের থেকে টাকাও নেওয়া হয়েছে বলে খবর।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর