দিনেদুপুরে বোরখা পরে পঞ্চায়েত অফিসে ঢুকে চুরি, জরুরি ফাইল হাতিয়ে পগারপার চোর

বাংলাহান্ট ডেস্ক : দিনেদুপুরেই এক মারাত্মক ঘটনার সাক্ষী থাকল মুর্শিদাবাদের সুতি ১ নম্বর ব্লকের হাড়ুয়া পঞ্চায়েত। বোরখা পরে ভরদুপুরে পঞ্চায়েত অফিসে ঢুকে গুরুত্বপূর্ণ ফাইল নিয়ে চম্পট দিল চোর। সিসিটিভি ফুটেজেও ধরা পড়েছে সেই চুরির দৃশ্য। বোরখার আড়ালে কে ছিল তা অবশ্য মোটেই জানা যায়নি এখনও। ঘটনাটিকে ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

   

পঞ্চায়েত সূত্রে খবর, স্থানীয় একটি স্কুলে চলছিল দুয়ারে সরকার শিবির। ফলে অধিকাংশ পঞ্চায়েত কর্মী দুপুরবেলা সেখানেই ছিলেন। যে দু একজন কর্মী পঞ্চায়েতে ছিলেন তাঁরা ব্যস্ত ছিলেন নিজেদের কাজে। সেই সুযোগেই অফিসে ঢোকে চোর। দুপুর একটা নাগাদ আপাদমস্তক বোরখায় ঢেকে পঞ্চায়েত অফিসে একজনকে ঢুকতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দাদের বেশ কয়েকজন। কিন্তু স্বভাবতই তখন সন্দেহ হয়নি কারও। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই আবার পঞ্চায়েত অফিস থেকে বেরিয়ে আসে ওই ব্যক্তি।

ওই ব্যক্তির ঢোকার এবং বেরোবার মাঝখানের সময়ের ঘটনাটাই ধরা পড়েছে সিসিটিভিতে। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, কিছুক্ষণ ঘোরাঘুরি করার পর একটি ঘরে গিয়ে আলমারি খোলার চেষ্টা করতে থাকে চোর। কিন্তু আলমারি খুলতে না পারায় টেবিলের উপর রাখা বেশ কয়েকটি ফাইল নিয়েই চম্পট দেয় সে।

পুরো ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে পঞ্চায়েত কর্মীদের মধ্যেও। এক পঞ্চায়েত কর্মী জানান, ‘টেবিল থেকে একটি গুরুত্বপূর্ণ ফাইল চুরি হয়ে যায়। আমাদের পঞ্চায়েত অফিসে একটি নিরাপত্তারক্ষী দরকার। না হলে আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। এভাবে চুরি হতে পারলে কখন কী হয় তা তো বলা যায় না।’ অন্যদিকে, জঙ্গিপুর লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ খলিলুর রহমান জানান, ‘এটা খুব দুর্ভাগ্যজনক। পঞ্চায়েত অফিস থেকে ফাইল চুরি যাচ্ছে। আমরা পুলিশের কাছে আবেদন রাখব সঠিকভাবে তদন্ত করে দোষীদের চিহ্নিত করতে।’ উল্লেখ্য, এখনও বোরখাধারী চোরকে ধরা সম্ভব হয়নি পুলিশের পক্ষে।