টাইমলাইনখেলাক্রিকেট

প্রত্যাশামতোই কমনওয়েলথ কুস্তিতে সিংহগর্জন ভারতের, স্বর্ণপদক জয় সাক্ষী মালিক ও বজরঙ্গ পুনিয়ার

বাংলা হান্ট নিউজ ডেস্ক: প্রত্যাশামতোই কুস্তির ফাইনাল আসতেই ভারতের ঝুলিতে একের পর এক পদক আসতে শুরু করেছে। শুক্রবার রাতে ভারতের তারকা কুস্তিগীর বজরঙ্গ পুনিয়া শুক্রবার কমনওয়েলথ গেমসের ৬৫ কেজি ক্যাটাগরির ফ্রি-স্টাইল কুস্তির ফাইনালে ভারতের ষষ্ঠ স্বর্ণপদকটি জয় করলেন। বজরঙ্গয়ের এই পদক প্রাপ্তির পরে চলতি প্রতিযোগিতা ভারতের পদক সংখ্যা ২২-এ পৌঁছেছিল। কোয়ার্টার ফাইনাল ও সেমিফাইনালে মতোই ফাইনালেও টোকিও অলিম্পিকের ব্রোঞ্জ পদক জয়ী প্রতিদ্বন্দ্বী কানাডার ল্যাচলান ম্যাকনিলের বিরুদ্ধে ফাইনালে একতরফা ৯-২ ফলাফলে জয় পায় বজরঙ্গ। টানা তিনটি কমনওয়েলথে পদক জিতলেন বজরঙ্গ। ২০১৪ তে গ্লাসগোয় রৌপ্য পদক জয়ের পর ২০১৮তে তিনি নিজের প্রথম স্বর্ণপদক জেতেন। ২০২২-এ বার্মিংহ্যামে সেই কীর্তির পুনরাবৃত্তি ঘটালেন তিনি। কুস্তিতে এইমুহূর্তে যে ভারতের চেয়ে কোনও প্রতিপক্ষ এগিয়ে নেই সেটা আবারও প্রমাণিত হলো।

ভারতের পদক উৎসব এখানেই শেষ হয়নি। এর কিছুক্ষণ পরে মহিলাদের ফ্রি স্টাইল কুস্তির ৬২ কেজি ক্যাটাগরিতে কানাডার আনা গঞ্জালেজকে হারিয়ে ভারতকে চলতি কমনওয়েলথের অষ্টম স্বর্ণপদকটি এনে দেন ভারতের আরেক তারকা কুস্তিগীর সাক্ষী মালিক। যদিও কানাডার প্রতিপক্ষর বিরুদ্ধে প্রথমার্ধে পিছিয়ে ছিলেন সাক্ষী মালিক। ৪-০ ব্যবধানে পিছিয়ে ছিলেন সাক্ষী। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে তিনি খেলা ঘুরিয়ে দেন। দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই একটানা আক্রমণ শুরু করেন সাক্ষী। অনেক চেষ্টা করেও তাকে বাগে আনতে পারেননি আনা। ফলস্বরূপ কমনওয়েলথে নিজের প্রথম স্বর্ণপদক ঘরে আনেন তিনি। এর আগে ২০১৪ কমনওয়েলথে রুপো এবং ২০১৮-তে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন তিনি। এবার আর কোনও ভুল না করে দেশকে সর্বোচ্চ পদকই এনে দিলেন ভারতীয় তারকা।

আজকেই এদের আগে মহিলাদের ৫৭ কেজি ক্যাটাগরিতে ফাইনালে পৌঁছে ছিলেন কুস্তি বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে রুপো জেতা অংশু মালিক। এটি ছিল তার প্রথম কমনওয়েলথ প্রতিযোগিতা। টেকনিক্যাল সুপিরিয়রিটিতে কোয়ার্টার-ফাইনাল এবং সেমিফাইনাল জিতে ফাইনালে পৌঁছে ছিলেন তিনি। কিন্তু নাইজেরিয়ার তারকা প্রতিপক্ষ আদেকুরোওয়ের বিরুদ্ধে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে হেরে এর উপর সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাকে। নিজের প্রথম কমনওয়েলথ হিসেবে যথেষ্টই ভালো পারফরম‍্যান্স করেছেন তিনি।

চলতি বছরের কমনওয়েলথ শুরু হওয়ার আগে ভারত কুস্তিতে মোট ১০২ টি পদক জিতেছিল। শুটিং ছাড়া আর কোনও বিভাগে এত দাপট দেখাতে পারেনি ভারত। কিন্তু কমনওয়েলথ ২০২২ থেকে শুটিংকে ছেঁটে ফেলা হয়েছে। তাই এই প্রতিযোগিতায় কুস্তিই সবচেয়ে বড় ভরসা ভারতের। ইতিমধ্যেই ভারত ২৩টি পদক জিতে ফেলেছে। কুস্তিতে আরও ৩ টি পদক আশা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Related Articles

Back to top button