টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

রাজ্য সরকারের নিরাপত্তা ছাড়লেন প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূলের দাপুটে নেতা! ঘোর জল্পনা রাজনৈতিক মহলে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের দাপুটে নেতা কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী নিজের নিরাপত্তা ছেড়ে দেন। আর তাঁর প্রধান কারণ হল, ওনার নিরাপত্তায় থাকা এক নিরাপত্তারক্ষীকে তুলে নিয়েছিল রাজ্য। এই ঘটনার জেরে রাগে তিনি সম্পূর্ণ নিরাপত্তাই ছেড়ে দেন। হঠাৎ কেন ওনার নিরাপত্তা তুলে নিল রাজ্য সরকার? এই নিয়ে নানান গুণিনের নানা মত। অনেকের মতেই কিছুদিন আগে মালদহে তৃণমূল বিধায়ক নীহাররঞ্জন ঘোষের বাড়িতে হামলা হয়েছিল। আর বিধায়কবাবু এই হামলার জন্য কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীকে দায়ি করেছিলেন। সেই কারণেই আচমকাই কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীর একজন নিরাপত্তা রক্ষীকে সরিয়ে দেয় রাজ্য।

রাজ্যের তরফ থেকে একজন নিরাপত্তা রক্ষী প্রত্যাহারের পর কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী রেগে গিয়ে সমস্ত নিরাপত্তাই ছেড়ে দেন। প্রাক্তন মন্ত্রীর এহেন সিদ্ধান্তের পর রাজনৈতিক মহলে নতুন করে জল্পনার সৃষ্টি হয়েছে।

নিরাপত্তা রক্ষীর ইস্যু নিয়ে প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী বলেন, ‘আমি গাড়ি নিয়ে যাচ্ছিলাম। আর সেই সময় আমার নিরাপত্তা রক্ষীকে ফোন করে বলা হয় যে আমার একজন নিরাপত্তা রক্ষী প্রত্যাহার করা হয়েছে। এরপর আমি অফিসে গিয়ে আমার সব সিকিউরিটিদেরই পাঠিয়ে দিই।” বলে রাখি, রাজ্যে বাম আমল থেকেই নিরাপত্তার বলয়ে ধীরে থাকতেন কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী। রাজ্যের মন্ত্রী হওয়ার পর ওনার নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়। আর এখন আচমকাই ওনার নিরাপত্তা প্রত্যাহারে অনেক প্রশ্ন উঠছে।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগে মালদহে শাসক দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব প্রকাশ্যে আসে। সেখানে বিধায়ক নীহাররঞ্জন ঘোষের বাড়িতে হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। বিধায়কের বাড়ির সামনে থাকা একটি বাইকে চালানো হয় ভাঙচুর। বাড়িতে ঢুকেও ভাঙচুর চালায় দুষ্কৃতীরা। বিধায়ককে লক্ষ্য করে ঢিলও ছোঁড়া হয়। এরপর বিধায়ক নীহাররঞ্জনবাবু এই ঘটনায় রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী এবং তৃণমূলে যুব সভাপতি যুক্ত আছেন বলে অভিযোগ করেন।

নীহাররঞ্জন রায়ের অভিযোগের পর প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী সহ কয়েকজন তৃণমূলের নেতা/কর্মীর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। কিন্তু মামলা দায়ের হলেও গ্রেফতার করা হয়নি একজনকেও। ওয়াকিবহাল মহলের মতে বিধায়কের অভিযোগের কারণেই কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরীর নিরাপত্তা প্রত্যাহার করেছে রাজ্য।

Back to top button