টাইমলাইনভারত

যোগী রাজ্যের পর আরেকটি বিজেপি শাসিত রাজ্যে লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে আইন লাগু করার প্রস্তুতি তুঙ্গে

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ উত্তর প্রদেশের (Uttar Pradesh) পর বিজেপি শাসিত হরিয়ানায় (Haryana) লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে আইন লাগু করা নিয়ে আলোচনা চলছে। এই কথা স্বয়ং হরিয়ানার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অনিল বিজ (Anil Vij) ট্যুইট করে জানান। জানিয়ে দিই, ফরিদাবাদের বল্লভগড়ে নিকিতার করুণ পরিণতির পর লাভ জিহাদের ইস্যু মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। আর এরপরই অনিল বিজ ট্যুইট করে হরিয়ানায় লাভ জিহাদের বিরুদ্ধে কড়া আইন আনার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান।

এর আগে উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) লাভ রাজ্যে লাভ জিহাদিদের প্রতি কড়া বার্তা দিয়েছিলেন। যোগী আদিত্যনাথ শনিবার উত্তরপ্রদেশের দেওরিয়া একটি নির্বাচনী জনসভা থেকে লাভ জিহাদিদের বিরুদ্ধে কড়া অ্যাকশন নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এলাহাবাদ হাইকোর্টের কথা উল্লেখ করে বলেন যে, গতকাল আদালত জানিয়েছে যে বিয়ের জন্য ধর্মপরিবর্তন করা বৈধ নয়। আদালতের এই সিদ্ধান্তের পর সরকার এখন লাভ জিহাদিদের বিরুদ্ধে কড়া অ্যাকশন নেওয়ার জন্য প্রতিবদ্ধ হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন, আমরা এই বিষয়ে কড়া আইন বানাব। উনি বলেন, আমি তাঁদের আগে থেকেই হুঁশিয়ার করে দিচ্ছি যারা নিজের পরিচয় গোপন করে আমাদের মা-বোনেদের সন্মানের সাথে খেলে। উনি বলেন, যদি তুমি না শোধরাও, তাহলে তোমার রাম নাম সত্য যাত্রা বের হবে।

জানিয়ে দিই, ধর্মপরিবর্তন নিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্ট শুক্রবার একটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আদালত জানিয়েছে যে, শুধুমাত্র বিয়ে করার জন্য ধর্মপরিবর্তন বৈধ না। আদালত বিপরীত ধর্মের দম্পতির আবেদন খারিজ করে আবেদনকারীদের ম্যাজিস্ট্রেটের সন্মুখে বয়ান দাখিল করার জন্য জানিয়েছে।

উল্লখ্য, ওই দম্পতি তাঁদের শান্তিপূর্ণ দাম্পত্য জীবনে তাঁদের পরিবারের হস্তক্ষেপ রোখার জন্য আবেদন জানিয়েছিল। আদালত জানিয়েছে যে, তাঁদের তরফ থেকে দম্পতির আবেদনে হস্তখেপ করা হবে না। আদালত জানিয়েছে যে, দম্পতির মধ্যে একজন মুসলিম অপরজন হিন্দু। যুবতী ২৯ জুন ২০২০ তে হিন্দু ধর্ম আপন করে নেয় আর একমাস পর ৩১ জুলাই বিয়ে করে নেয়। আদালত জানিয়েছে যে, রেকর্ড দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে বিয়ে করার জন্যই ধর্মপরিবর্তন করা হয়েছিল।

Back to top button