টাইমলাইনভারত

স্ত্রীর উপর রাগ করে মোবাইল টাওয়ারে উঠে পড়ল স্বামী, বললেন- চাই না শ্বশুর বাড়ির কাউকে

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ স্বামী স্ত্রীর সম্পর্কে ঝগড়া খুনসুটি লেগেই থাকে। কথায় বলে, মান অভিমানের মধ্যে দিয়েই স্বামী স্ত্রীর ভালোবাসা আরও গভীর হয়। তবে ঝগড়া তো নিত্য জীবনের এক সঙ্গী। কিন্তু তাই বলে মোবাইল টাওয়ারে উঠবে স্বামী! উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) মহারাজগঞ্জ জেলায় রবিবার সকালে এমনই এক ঘটনার সাক্ষী থাকল গোটা এলাকাবাসী।

উত্তরপ্রদেশের মহারাজগঞ্জ জেলায় সদর কোতয়ালী এলাকায় স্বামী স্ত্রীর মধ্যে ঝামেলা হওয়ায় স্বামী রাগের বশে খামারের মোবাইল টাওয়ারে উঠে যান। সেখান থেকেই স্ত্রীকে এবং তাঁর বাপের বাড়ির লোকজনদের উল্টো পাল্টা কথা বলতে থাকে। এই ঘটনা দেখে গ্রাম সুদ্ধ লোক এসে ভিড় জমায় টাওয়ারের নীচে। গ্রামবাসীদের বোঝানোয় কয়েক ঘণ্টা পর তাঁকে নামানো সম্ভব হয়।

এই ঘটনার বিষয়ে সদর কোটওয়াল অখিলেশ কুমার সিংহ জানিয়েছেন, ঘটনার খবর আমরা পেয়েছিলাম। তবে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর পূর্বেই গ্রামবাসী যুবককে নীচে নামাতে সক্ষম হয়।

আসল ঘটনাটি হল, মোবাইল টাওয়ারে যে যুবক উঠে পড়েছে, সে নিজের গ্রামেরই একটি মেয়েকে ভালোবাসত। কিন্তু তাঁর পরিবার তাঁদের সম্পর্ক মেনে নেয় নি। ভালোবাসাকে ভুলতে না পেরে, তারা পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়।

পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করায় ওই যুবকের পরিবারের লোকজন তাঁদের সঙ্গে কোনরকম সম্পর্ক রাখতে অস্বীকার করে। তাঁদের বাড়ি থেকেও তাড়িয়ে দেওয়া হয়। এই অবস্থায় তারা পৃথক ভাবে দুজনে সংসার করতে থাকে। কিন্তু মেয়েটি তাঁর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখত। মেয়েটির পরিবার তাঁদের বিয়ে মন থেকে না মানতে পারলেও, তারা মেয়ের খোঁজ খবর নিত।

তাঁদের নতুন সংসারে স্ত্রীর বাপেরবাড়ির হস্তক্ষেপ মেনে নিতে পারেনি তাঁর স্বামী। যুবকটির বক্তব্য, আমার যেমন আমার পরিবারের সঙ্গে কোনরকম সম্পর্ক নেই, তেমনই তাঁর স্ত্রীকেও তাঁর বাপেরবাড়ির সঙ্গে কোন রকম সম্পর্ক রাখা চলবে না। এই নিয়ে দুজনের মধ্যে তুমুল দ্বন্ধ বাঁধে। যার জেরেই মোবাইল টাওয়ারে উঠে যায় স্বামী।

Back to top button