টাইমলাইনভারত

‘আমি হলে ৩৫ নয়, ৩৬ টুকরো করতাম” আফতাবকে সমর্থন করা ব্যক্তি গ্রেফতার পুলিসের হাতে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : বড়ই অদ্ভুত তার যুক্তি। ‘রাগের মাথায়’ এরকমটা নাকি হতেই পারে। ৩৫ কেন, আফতাব চাইলে ৩৬ টুকরোও করতে পারত শ্রদ্ধার (Sraddha Walkar murder) দেহ! এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা বিকাশ কুমারের। শ্রদ্ধা ওয়াকার খুনের ঘটনায় কেঁপে উঠেছে গোটা দেশ, সেই ঘটনায় নৃশংস খুনি আফতাবের (Aftab Amin Poonawala) প্রতিই সমর্থন জানিয়েছেন বিকাশ। শুধু তাই নয়, আফতাবকে সমর্থন করতে মুসলিম নামও নেন তিনি (Pretended To Be Muslim)। ঘটনা সামনে আসার পরেই বিকাশকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

জানা যাচ্ছে, বিকাশ কুমার নামের ওই যুবক উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরের বাসিন্দা। সম্প্রতি দিল্লির এক সাংবাদিকের কাছে লিভ-ইন সঙ্গী আফতাব আমিন পুনাওয়ালার হাতে শ্রদ্ধা ওয়াকারের নৃশংস হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে নিজেকে ‘রশিদ খান’ বলে পরিচয় দেয় বিকাশ। পুরো ঘটনায় আফতাবের প্রতি সমর্থনও প্রকাশ করে সে। বিকাশের দাবি করেন, রাগের মাথায় এরকম ঘটনা ঘটতেই পারে, এটা তেমন কোনও বড় একটা বিষয় নয়!

প্রেমিকাকে খুনের পর তাঁর দেহ ৩৫ টুকরো করে কেটে দিল্লির মেহরৌলির জঙ্গলে ফেলে দিয়ে আসে আফতাব। পুরো বিষয়টাতে আফতাবকেই সমর্থন জানিয়েছেন বিকাশ কুমার। তাঁর দাবি, ৩৫ কেন, শ্রদ্ধাকে ৩৬ টুকরোও করতে পারত আফতাব। এরপর তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, তিনিও ‘রাগের মাথায়’ এমন কাজ করতে পারেন কিনা। বিকাশের জবাব, রেগে গেলে লোকে এরকম অনেক কিছুই করে, এটা আলাদা করে বড় কোনও বিষয়ই নাকি নয়।

এই ঘটনা সামনে আসার পরেই গ্রেফতার করা হয় বিকাশকে। বুলন্দশহরের সিনিয়র সুপারিনটেনডেন্ট অফ পুলিস শ্লোক কুমার জানান, এর আগেও অপরাধ করার রেকর্ড রয়েছে বিকাশের। বুলন্দশহর এবং নয়ডায় চুরি এবং বেআইনি অস্ত্র নিয়ে যাওয়ার মামলা রয়েছে বিকাশের বিরুদ্ধে। গ্রেফতার হওয়ার পর বিকাশের দাবি, এই সামান্য বিষয়ে এত অশান্তি হবে জানলে তিনি এমন কিছু করতেন না। তাঁর আরও দাবি, পুলিসের হেফাজত হোক বা জেল, তাঁকে নাকি মেরে ফেলা হবে।

Related Articles