fbpx
টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গ

“আমরা মশা আমদানি করলে, ফার্স্ট বলতাম আপানাদের কামড়াতে”, বিধানসভায় বিস্ফোরক মমতা

বাংলা হান্ট ডেস্ক :  রাজ্যে থাবা বসিয়েছে ডেঙ্গু। ইতিমধ্যেই ডেঙ্গুর বলিতে প্রাণ হারিয়েছেন রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে বেশ কয়েকজন। আর এই ডেঙ্গু নিয়ে ইতিমধ্য়েই বিরোধীরা রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে। এবার ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে উত্তাল হল বিধানসভা। মঙ্গলবার বিধানসভায়  রাজ্য সরকার ডেঙ্গু রুখতে ব্য়র্থ এমন মন্তব্য করেন অশোক ভট্টাচার্য, সেই সঙ্গে রাজ্য সরকার শক্তি গোপন করছে বলেও অভিযোগ তোলেন। বিরোধীদের অভিযোগ শুনেই কার্যত মাথার ঠিক রাখতে পারেননি রাজ্যের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তাই বিরোধীদের পাল্টা আক্রমণ করতে মাঠে নামেন মুখ্যমন্ত্রী। বিরোধীরা ডেঙ্গু নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছেন, কুত্সা রটাচ্ছেন ঠিক এই মন্তব্যই করেন তিনি। পাশাপাশি বিরোধীদের বিরুদ্ধে এক হাত নিয়ে বাংলাদেশকে বন্ধুত্ব হিসেবে মেনে নিলে রোগকে মেনে নিতে হবে বলে মন্তব্য করেন মমতা। একইসঙ্গে,  তিনি আরও বলেন “কোথা থেকে লার্ভা আসছে, কেউ জানি না। আমরা কি জানি, কোথা থেকে আমদানি হচ্ছে। মশাগুলো যদি আমরা আমদানি করতে পারতাম, তাহলে ফার্স্ট বলতাম আপনাদের কামড়াতে।”

উল্লেখ্য এদিন বিধানসভায় ডেঙ্গু প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে অশোক ভট্টাচার্য রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে গোপন কথাটি রবে না গোপনে এবং সংখ্যা বেড়েছে এই খবর বেরিয়ে গিয়েছিল, বলে মন্তব্য করেন পাশাপাশি এই ব্যর্থতার দায় রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরকে নিতে হবে বলে দাবি জানান তিনি। পাশাপাশি সোমবার স্বাস্থ্যসচিবের পদ থেকে সঙ্ঘমিত্রা ঘোষকে সরিয়ে দেওয়া নিয়েও প্রকাশ করেন তিনি।

রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের তরফ থেকে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করতে বারবার প্রচার চালানো হচ্ছে। সরকারি হসপিটালে ডেঙ্গু চিকিত্সা করা এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে জল পান করা এসব করার জন্য সংবাদমাধ্যম এবং টিভি চ্যানেলে প্রচার চালাচ্ছে রাজ্য সরকার। এমনকি ডেঙ্গু প্রতিরোধক ব্যবস্থা নিয়েই রাজ্যের বিভিন্ন জেলা হাসপাতালগুলিকে কড়া নির্দেশ দিয়েছিল রাজ্য সরকার।

Close
Close