টাইমলাইন

মাত্র ২৫ টাকায় দেশ বিদেশের প্রিমিয়াম চ্যানেল মোবাইলে, আলিপুরদুয়ারের যুবকের কীর্তিতে হতবাক পুলিশ

বাংলাহান্ট ডেস্ক : রোজকার নাগরিক জীবনে ব্যস্ততা বাড়ছে, কমছে টিভি দেখার সময়। আর সেই কারণেই রমরমিয়ে চলছে অনলাইন প্লাটফর্মগুলি। তবে এই অনলাইন প্লাটফর্ম গুলির সাবস্ক্রাইবার হতে গেলে প্রতিমাসে আপনাকে সাধারণত গুনতে হবে কয়েকশো টাকা। কিন্তু এই কয়েকশো টাকার অ্যাপ সাবস্ক্রিপশনই যদি মাত্র ২৫ টাকায় পাওয়া যায়, তাহলে ব্যাপারটা কেমন হয়? কি ভাবছেন?কোনো নতুন অফার? হ্যাঁ, নতুন অফার সেটা ঠিক! তবে, আইনি মতে নয়,বরং সম্পূর্ণ বেআইনি ভাবে।

যে চ্যানেল গুলো দেখার জন্য কেবল অপারেটর বা অ্যাপ কর্তৃপক্ষকে কয়েকশ টাকা সাবস্ক্রিপশন ফিজ় দিতে হয় সেগুলি দেখা যাচ্ছিল মাত্র ২৫ টাকার বিনিময়ে। চ্যানেল গুলির লাইভ স্ট্রিম করা যাচ্ছিল একটি বিশেষ অ্যাপ ডাউনলোড করলেই। সেই অ্যাপের সাবস্ক্রিপশন নেওয়ার জন্য পকেট থেকে খসাতে হত খুব সামান্য অঙ্কের টাকা। আর তার ষপরই দেখা যেত দেশ বিদেশেরঅসংখ্য চ্যানেল।যদিও এই কাজ সম্পূর্ন বেআইনি।

জানা গিয়েছে, অসম বাংলা সীমানার বারোবিশার ভলকা চড়াইমহল এলাকার বছর কুড়ির যুবক সুদীপ সূত্রধর। তিনি এমন একটি অ্যাপ বানিয়েছে যা ডাউনলোড করলে দেশ,বিদেশের একাধিক চ্যানেল দেখা যেত।দেশ বিদেশের একাধিক বিনোদনের চ্যানেল,খবরের চ্যানেল,খেলার চ্যানেল দেখা যাচ্ছিল সামান্য কিছু টাকার বিনিময়।
গত কয়েকমাস ধরে এরমই বেআইনি ব্যবসা ফেঁদে বসেছিলেন সুদীপ।কিছু মাস আগে শুরু হয় গোলমাল।তার অ্যাপে স্টার ইন্ডিয়ার কিছু এইচডি চ্যানেল এর সম্প্রচার শুরু করতেই তা নজরে আসে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের ।এই ব্যাপারে অনুসন্ধান শুরু করে স্টার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষ।তদন্তে নেমে সুদীপের অ্যাপ এর বিষয়ে জানতে পারে তারা।তারপর পুলিশে অভিযোগ করা হয় সংস্থার পক্ষ থেকে।

তাদের অভিযোগের ভিক্তিতেই পুলিশ গ্রেপ্তার করে সুদীপকে।সুদীপের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে আইটি এবং কপিরাইট আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।
কীর্তিমান সুদীপের কান্ড কারখানা দেখে অবশ্য হতবাক পুলিশ। জানা গিয়েছে সুদীপের পড়াশুনা অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত।এতো কম পড়াশোনা নিয়েও সে কিভাবে এরকম একটা অ্যাপ তৈরি করলো সেই ব্যাপার খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

Related Articles

Back to top button