টাইমলাইনটেক নিউজ

টিকটক ব্যান হওয়ায় রকেটের গতিতে উত্থান বিকল্প ভারতীয় অ্যাপ চিঙ্গারির

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ টিকটক (tiktok) সহ চীনের (china) প্রায় ৫৯ টি অ্যাপ কে নিষিদ্ধ ঘোষনা করেছে ভারত সরকার। যার জেরে ভারতের অ্যাপগুলির জনপ্রিয়তা হু হু করে বাড়ছে। আর এই বাড়তি জনপ্রিয়তায় সবাইকে পেছনে ফেলে দিয়েছে চিঙ্গারি (chingari)।

চিঙ্গারি’র ব্যাবহার টিকটকের মতই এটিও ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম   । ভারতের টিকটক ব্যাবহারকারীদের একটা বড় অংশ এই শর্ট ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মটিকে বিকল্প হিসাবে বেছে নিয়েছে। এই বিকল্প প্ল্যাটফর্মটির তরফ থেকে সুমিত ঘোষ দাবি করেছে, “অ্যাপে প্রতি মিনিটে প্রায় 10,000 ব্যবহারকারী রয়েছেন। প্রতি ঘন্টা 3 মিলিয়ন ভিডিও স্যুইপ করা বা দেখা হচ্ছে। গত ২৪ ঘন্টা ২ মিলিয়ন ভিডিও দেখা হয়েছে। প্রতি ঘন্টা 90,000 নতুন ব্যবহারকারী অ্যাপ্লিকেশনটিতে যোগদান করছে” সহজেই এর থেকে এই প্ল্যাটফর্মটির জনপ্রিয়তা যে কি হারে বাড়ছে বোঝা যাচ্ছে।

গুগল অ্যানালিটিক্সের যে তথ্য টুইটারে সুমিত ঘোষ শেয়ার করেছেন তাতে আশ্চর্য হতে হয়। ব্যবহারকারীরা কেবল ভারত নয়, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব এমনকি মার্কিন মুলুকেও বাড়ছে জনপ্রিয়তা।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ জানুয়ারি চিনা অ্যাপে নিষেধাজ্ঞার বিজ্ঞপ্তি জারি করে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক। তথ্যপ্রযুক্তি আইনের 69 ধারা ব্যবহার করে এই অ্যাপ গুলিতে নিষিদ্ধ করা হয় এবং সরকারের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয় যাতে বলা হয়েছে, দেশের সার্বভৌমত্ব ও সুরক্ষার প্রশ্নে বিপদজনক এই চিনা অ্যাপগুলি। লাদাখ সীমান্তে ভারত-চীন উত্তেজনার মাঝে ভারত সরকারের এই সিদ্ধান্ত চীনের কাছে কড়া বার্তা পৌঁছে দেবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞমহল।

Back to top button