টাইমলাইনভারত

Indian Railways: নীচে মেঘ, ওপরে সেতু! ভারতীয় রেল শেয়ার করল চেনাব ব্রিজের একের পর এক মনোমুগ্ধকর ছবি

বাংলা হান্ট ডেস্ক: ইতিমধ্যেই ভারতে স্থিত বিশ্বের সর্বোচ্চ আর্চ ব্রিজ চেনাব সেতুর (Chenab Bridge) নির্মাণকাজ শেষ হয়েছে। আপাতত রেললাইন বসানোর কাজ বাকি রয়েছে সেখানে। এমতাবস্থায়, মনে করা হচ্ছে যে, ২০২২ সালের শেষ নাগাদ এই সেতু চালু করে দেওয়া যাবে। এদিকে, প্রথম থেকেই এই সেতুটি তার অনবদ্য নির্মাণ এবং প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্য বারংবার খবরের শিরোনামে উঠে এসেছে। এমতাবস্থায়, ভারতীয় রেলওয়ে (Indian Railways) এবার এই সেতুর কিছু মনোমুগ্ধকর ছবি সামনে এনেছে সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media)। যা দেখে অভিভূত হয়েছেন সকলেই।

ভারতীয় রেলের শেয়ার করা ওই ছবিগুলি এক কথায় নৈস্বর্গিক আবহ তৈরি করেছে। যেখানে দেখা গিয়েছে, মেঘেদের ওপরেই স্বমহিমায় দাঁড়িয়ে রয়েছে ওই সেতু। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, চেনাব সেতুটি তৈরি করতে প্রায় ১৮ বছর সময় লেগেছে। পাশাপাশি, এই রেল সেতুর উচ্চতা হল ৩৫৯ মিটার। যা ইতিমধ্যেই একটি বিশ্ব রেকর্ড হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। মূলত, এই সেতুটি উধমপুর, শ্রীনগর, বারামুল্লা রেল সংযোগ প্রকল্পের একটি অংশ। যা দিল্লির কুতুব মিনারের থেকে পাঁচ গুণ বেশি উঁচু। শুধু তাই নয়, পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এটি ফ্রান্সের আইফেল টাওয়ার থেকেও ৩৫ মিটার বেশি উঁচু। এমতাবস্থায়, এই সেতু নির্মাণের সাথে সাথে ভারতীয় রেল নেটওয়ার্ক কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী পর্যন্ত সংযুক্ত হয়েছে।

ভারত সরকারের মতে, চেনাব সেতু নির্মাণে মোট ১,৪৮৬ কোটি টাকা খরচ হয়েছে। মূলত, প্রাকৃতিক ভাবে অত্যন্ত দুর্গম হওয়ায় এই সেতু তৈরিতে একাধিক সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়। পাশাপাশি, সেতুটি তৈরির ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ছিল আবহাওয়া। কারণ, ওই এলাকায় কোনো কোনো সময়ে ঘন্টায় ১০০ থেকে ১৫০ কিলোমিটার বেগে বাতাস প্রবাহিত হয়। সেই কারণেই এই সেতুটি এতটাই মজবুত করা হয়েছে যে তা প্রতি ঘণ্টায় ২৬০ কিলোমিটার গতিবেগের বাতাসও সহ্য করতে সক্ষম।

পাশাপাশি, এই সেতুটির আয়ু ১০০ বছরেরও বেশি বলে অনুমান করা হয়েছে। সর্বোপরি, চেনাব সেতুতে কোনোভাবেই জং ধরবেনা। উল্লেখ্য যে, সেতুটি স্ট্রাকচারাল স্টিল দিয়ে তৈরি। এটি মাইনাস ১০ ডিগ্রি থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রা সহ্য করতে পারে। এছাড়াও, ভূমিকম্প ও বিস্ফোরণের ফলেও এই সেতুর কোনো ক্ষতি হবে না। যার ফলে সেনাবাহিনী ও নিরাপত্তা বাহিনীও এটি ব্যবহার করতে পারবে।

উল্লেখ্য যে, চেনাব সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০০২ সালে। কিন্তু ২০০৮ সালে এর কাজ বন্ধ হয়ে যায়। যা ফের ২০১০ সালে শুরু করা হয়। এদিকে, রেলমন্ত্রক গত ১৩ সেপ্টেম্বর টুইটারে চেনাব সেতুর কিছু সুন্দর ছবি শেয়ার করেছে। যেগুলি দেখে অবাক হয়েছেন নেটিজেনরাও। পাশাপাশি, চেনাব সেতুর অপরূপ সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হয়েছেন সকলেই। সর্বোপরি, ছবিগুলি দেখে নিজেদের প্রতিক্রিয়াও জানাচ্ছেন নেটাগরিকরা।

Related Articles