সিট থাকলেও নেই গদি! হাজার হাজার টাকার টিকিট কেটে বিপাকে বিমান যাত্রী, প্রশ্নের মুখে Indigo পরিষেবা

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বিমানের জানালার পাশের আসনটি অনেকেরই পছন্দের। আর পছন্দের এই আসনটি বুক করার জন্য অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয় আমজনতাকে। তবে মোটা টাকা দিয়ে টিকিট কাটার পর যদি দেখেন আসনের কুশনটি উধাও (Seat Cushion Missing), তাহলে তো মাথা খারাপ হবেই। সম্প্রতি এমনটাই ঘটেছে নাগপুরের বাসিন্দা সাগরিকা পট্টনায়েকের সাথে।

সূত্রের খবর, গত রবিবার নাগপুরের বাসিন্দা সাগরিকা এস. পট্টনায়েক পুনেতে ইন্ডিগো (Indigo Flight) ফ্লাইটে নং ৬ই-৬৭৯৮ (6E-6798) এর উইন্ডো সিট ১০এ ( 10A) বুক করেছিলেন। যথারীতি সময়ের মধ্যে পৌঁছে নিজের সিটের দিকে এগিয়ে যান তিনি। তবে সেখানে পৌঁছেই তার চক্ষু চড়কগাছ। তিনি দেখেন, আসন তো যথাস্থানেই রয়েছে কিন্তু কুশনটি অনুপস্থিত। সেই ছবিই তিনি পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়।

   

মহিলার স্বামী সুব্রত পট্টনায়ক সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে জানান, তিনি এই বিষয়টি দেখা মাত্রই কেবিন ক্রুদের শরণাপন্ন হয়েছিলেন। সেখান থেকে তাকে বলা হয় আসনের নিচে চেক করতে। তবে সেখানেও নাকি কোনও কুশন ছিলনা। সেটা জানানোর পর একজন ক্রু মেম্বার একটি কুশন এনে আসনটিকে ঠিকঠাক করে দেন। তবে সুব্রত বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে জানাতেই বিমান সংস্থার ট্রোলিং শুরু হয়ে যায়।

আরও পড়ুন : এবার পুরিগামী বন্দে ভারতে হামলা, পাথরের ঘাঁয়ে ভেঙে চুরমার জানালার কাঁচ! বিপাকে যাত্রীরা

এরপরেই এক্স প্লাটফর্মে সুব্রতর পোস্টের রিপ্লাইতে এয়ারলাইন লেখে, ‘মাঝে মাঝে, সিট কুশনটি তার ভেলক্রো থেকে সরে যায়। আমাদের ক্রুদের সাহায্যে এটিকে পুনরায় স্থাপন করে দেওয়া হয়। উপরন্তু, আপনার অভিযোগ পর্যালোচনার জন্য সংশ্লিষ্ট বিমানের কর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হবে। আশা করি ভবিষ্যতে আপনাদের আরও ভালো সেবা দিতে পারব।’

ndigo responds after passenger finds seat cushion missing on pune nagpur flight

তবে সুব্রতও ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নন। তিনি আরও লেখেন, “যখনই একটি প্লেন টেক-অফের জন্য প্রস্তুত হয়, ক্লিনিং ক্রু বোর্ডিং করার আগে পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা করার জন্য আসে। তারা কি হারিয়ে যাওয়া কুশনটি লক্ষ্য করেনি? এমনকি কেবিন ক্রু, যারা বিমানে প্রথম প্রবেশ করে, তারাও পারেনি। ঘাটতি খুঁজে পাচ্ছি না?’ সুব্রতর কথায় সহমত প্রকাশ করেছে নেটিজনরাও। সাধারণ মানুষের বক্তব্য, এই ধরণের ভুল অবশ্যই ইন্ডিগোর মতো এয়ারলাইন ব্র্যান্ডের কাছ থেকে প্রত্যাশিত নয়।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর