পঞ্চভূতে বিলীন হলেন জৈন সমাজের “বর্তমান মহাবীর”! শোকের ছায়া সমগ্ৰ দেশজুড়ে, স্মৃতিচারণ প্রধানমন্ত্রীর

বাংলা হান্ট ডেস্ক: সমগ্র জৈন সম্প্রদায়ের জন্য রবিবার একটি অত্যন্ত কঠিন দিন হয়ে থাকল। কারণ, আজকে বর্তমান জৈন সমাজের মহাবীর হিসেবে বিবেচিত আচার্য বিদ্যাসাগর জি মহারাজ (Jain Saint Aacharya VidhyaSagar Ji Maharaj) দেহত্যাগ করেন এবং পূর্ণ আচার-অনুষ্ঠানে সমাধি গ্রহণ করেন। রবিবার রাত ২ টো ৩৫ মিনিট নাগাদ তিনি ইহলোক ত্যাগ করেন। উল্লেখ্য যে, আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজ আচার্য জ্ঞানসাগরের শিষ্য ছিলেন। আচার্য জ্ঞানসাগর সমাধি লাভ করার আগে তিনি তাঁর আচার্যের পদ বিদ্যাসাগর জির কাছে হস্তান্তর করেন। বিদ্যাসাগর জি ১৯৭২ সালের ২২ নভেম্বর মাত্র ২৬ বছর বয়সে আচার্য হন।

   

কে হবেন পরবর্তী আচার্য: একইভাবে, আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজও সমাধির আগে তাঁর আচার্যের পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন এবং তাঁর প্রথম শিষ্য সিদ্ধান্তক শ্রমণ মুনি শ্রী সময়সাগরের কাছে তাঁর আচার্যের পদ হস্তান্তর করেছিলেন। জানা গিয়েছে, ৬ ফেব্রুয়ারি তিনি নিজেই মুনি সময়সাগর ও মুনি যোগসাগরকে একান্তে ডেকে তাঁদের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন। জানিয়ে রাখি যে, ঋষি সময়সাগর এবং যোগসাগর হলেন তাঁর নিজের ভাই।

জন্মগ্রহণ করেন কর্ণাটকে: আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজ ১৯৪৬ সালের ১০ অক্টোবর শরদ পূর্ণিমার দিনে কর্ণাটকের বেলগাঁওয়ের সদালগা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর ৩ ভাই ও ২ বোন রয়েছেন। ৩ ভাইয়ের মধ্যে ২ ভাই আজ সন্ন্যাসী এবং আরেক ভাই মহাবীর প্রসাদও ধর্মীয় কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজের বোন স্বর্ণা ও সুবর্ণাও তাঁর কাছ থেকে ব্রহ্মচর্য গ্রহণ করেছিলেন। উল্লেখ্য যে, আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজ এখন পর্যন্ত ৫০০-রও বেশি দীক্ষা দিয়েছেন। সম্প্রতি গত ১১ ফেব্রুয়ারি, বিদ্যাসাগর মহারাজ গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে মহাবিশ্বের ঈশ্বর হিসেবে সম্মানিত হন।

Jain Saint Aacharya VidhyaSagar Ji Maharaj took the Samadhi

বাবা-মাও নেন সমাধি: আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজের মায়ের নাম শ্রীমতি এবং পিতার নাম মল্লপা। তাঁর পিতা-মাতাও তাঁর কাছ থেকে দীক্ষা গ্রহণ করে সমাধি লাভ করেন। আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজ সমগ্র বুন্দেলখণ্ডে “ছোটে বাবা” নামে পরিচিত। কারণ তিনি মধ্যপ্রদেশের দামোহ জেলায় অবস্থিত কুন্দলপুরের মন্দিরে “বড় বাবা” আদিনাথ ভগবানের মূর্তি স্থাপন করেছিলেন এবং কুন্দলপুরে অক্ষরধামের আদলে একটি বিশাল মন্দিরও নির্মাণ করেছিলেন।

দর্শন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী: এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, গতনভেম্বরে ছত্তিশগড় নির্বাচনের আগে, প্রধানমন্ত্রী মোদী আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজের কাছে গিয়েছিলেন এবং তাঁর আশীর্বাদ নিয়েছিলেন। আচার্য বিদ্যাসাগর মহারাজ জনকল্যাণের জন্যও পরিচিত ছিলেন। তিনি গরিব থেকে জেলের কয়েদি সবার জন্য কাজ করেছেন। পাশাপাশি, তিনি সর্বদা হিন্দি রাষ্ট্র এবং হিন্দি ভাষার প্রচারেও অগ্রণী ছিলেন।

আরও পড়ুন: পারল না কেউ, ফের দাপট বাড়ল আদানির! গৌতমের হাতে এল ৩০ হাজার কোটির জ্যাকপট

কি জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী: এদিকে, ইতিমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী “এক্স” মাধ্যমে পোস্ট করে লিখেছেন যে, “আচার্য শ্রী ১০৮ বিদ্যাসাগর জি মহারাজের মৃত্যু দেশের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি। মানুষের মধ্যে আধ্যাত্মিক জাগরণের জন্য তাঁর মূল্যবান প্রচেষ্টা সর্বদা স্মরণীয় হয়ে থাকবে। সারা জীবন তিনি দারিদ্র মোচনের পাশাপাশি সমাজে স্বাস্থ্য ও শিক্ষার প্রসারে নিয়োজিত ছিলেন। এটা আমার সৌভাগ্য যে আমি তাঁর আশীর্বাদ পেয়েছি। গত বছর ছত্তিশগড়ের চন্দ্রগিরি জৈন মন্দিরে তাঁর সাথে সাক্ষাৎ আমার কাছে অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। তখন আমি আচার্য জির কাছ থেকে অনেক ভালবাসা এবং আশীর্বাদ পেয়েছি। সমাজে তাঁর অতুলনীয় অবদান দেশের প্রতিটি প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে।”

আরও পড়ুন: রাজ্যের গাড়ির মালিকরা পেলেন বড় স্বস্তি! ট্যাক্স-এ মিলবে দুর্দান্ত ছাড়, বিধানসভায় পাশ হল বিল

পূর্ণাঙ্গ আচার-অনুষ্ঠানের সঙ্গে শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হবে: জানিয়ে রাখি যে, আচার্য শ্রী বিদ্যাসাগর মহারাজের শেষকৃত্য দুপুর ১ টা নাগাদ জৈন রীতিতে সম্পন্ন করা হবে। ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী বিষ্ণুদেব সাই এবং মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহানও সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন।

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর