রাতের ঘুম উড়ল কলকাতাবাসীর! বকেয়া সম্পত্তি করে ছাড় বন্ধ করছে কলকাতা পুরসভা, জানুন নয়া নিয়ম!

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ বকেয়া সম্পত্তি কর মেটানোর ক্ষেত্রে এবার নয়া নিয়ম চালু করতে চলেছে কলকাতা পুরসভা (Kolkata Municipal Corporation)। এতদিন ধরে একটা বড় অংশের ছাড় মিলত। এবার সেই নিয়ম বন্ধ হতে চলেছে। KMC সূত্রে জানা যাচ্ছে, আগামী আগস্ট মাস থেকে নয়া নিয়মে বকেয়া সম্পত্তি কর আদায় শুরু হবে। সেই নয়া পদ্ধতিতেই কলকাতা পুর এলাকার বাসিন্দাদের কর মেটাতে হবে।

KMC সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই এই ‘ওয়েভার স্কিমে’র একটি রূপরেখা প্রস্তুত হয়ে গিয়েছে। এতদিন অবধি বকেয়া করের (Property Tax) ছাড়ের বিষয়ে সুদের ওপর ৫০% ও জরিমানার ওপর ৯৯% ছাড় পাওয়া যেত। ২০১৮ সাল থেকে পুর আইন অনুযায়ী এই ছাড় প্রদান করা শুরু হয়। গত ৬ বছর ধরে চলার পর এবার সেই নিয়ম বন্ধ হতে চলেছে।

   

জানা যাচ্ছে, ছাড় দিয়ে যতখানি কর আদায় করা যাবে বলে আশা করা হয়েছিল তেমনটা হয়নি। বহু ক্ষেত্রে এখনও কর বাকি রয়ে গিয়েছে। সেই জন্য চলতি বছরের শুরুর দিকেই নতুন অর্থবর্ষ থেকে এই ছাড় তুলে নতুন নিয়মে কর আদায়ের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। লোকসভা ভোটের কারণে নয়া অর্থবর্ষের প্রথম দিন তথা ১ এপ্রিল থেকে এই নিয়ম কার্যকর করা যায়নি। আগামী ১ আগস্ট থেকে এই নতুন পদ্ধতিতে কর আদায় শুরু হবে বলে খবর।

আরও পড়ুনঃ খাস কলকাতায় শ্যুটআউট! মহানগরীতে খুল্লমখুল্লা চলল গুলি, তুমুল শোরগোল!

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, যত দিন কর বকেয়া রয়েছে, জরিমানা এবং সুদের ওপর ছাড় তত কমবে। ২ কিংবা তার কম সময়ে বাকি থাকা কর মেটালে জরিমানার ওপর ৯৯% এবং সুদের ওপর ৫০% অবধি ছাড় মিলবে। ২-৫ বছর বাকি থাকলে জরিমানার ওপর ৭৫% এবং সুদের ওপর ৪৫% ছাড় পাওয়া যাবে। ৫-১০ বছর বাকি থাকলে জরিমানার ওপর ৫০% এবং সুদের ওপর ৪০% ছাড় পাওয়া যাবে। যদি এক দশক কিংবা তার বেশি সময় ধরে বকেয়া থাকে তাহলে জরিমানার ওপর ২৫% এবং সুদের ওপর ৩৫% ছাড় মিলবে।

kolkata municipal corporation kmc

তবে আগামী জুলাই মাসের মধ্যে বকেয়া কর মেটানোর জন্য পুরসভার কাছে যারা আবেদন করবেন, তাঁদের পুরনো নিয়মেই ছাড় দেওয়ার সুযোগ প্রদান করা হবে। তবে এই পদ্ধতি শুধুমাত্র ২ মাসের জন্য চালু থাকবে। KMC সূত্রে জানা যাচ্ছে, জুন ও জুলাই মাসে অ্যাপ্লাই করলে এই সুযোগ মিলবে।

Sneha Paul
Sneha Paul

স্নেহা পাল, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তরের পর সাংবাদিকতা শুরু। বিগত ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর