‘কয়লা-কেলেঙ্কারির সাথে যুক্ত…’, পদ ছাড়তেই কোন বন্দ্যোপাধ্যায়ের গ্রেফতারের দাবি তুললেন কুণাল?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ একেবারেই নজিরবিহীন! লোকসভা ভোটের আগে দলেরই সাংসদের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক তৃণমূলের কুণাল ঘোষ। বৃহস্পতিবার রাত থেকে একের পর এক তোপ দাগছেন কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)! প্রথমে নাম না করেই দলের এক নেতাকে ‘অযোগ্য’, ‘গ্রুপবাজ’, ‘স্বার্থপর’ বলে আক্রমণ করেন তিনি। এরপর শুক্রবার তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) রাজ্য সাধারণ সম্পাদক এবং মুখপাত্র পদ থেকে সরে দাঁড়িয়ে সরাসরি সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন। আর এদিন রীতিমতো বোমা ফাটালেন কুণালবাবু।

   

শুক্র থেকে শনির সকালে আরও এক ধাপ এগিয়ে ইডি, সিবিআইকে ট্যাগ করে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Sudip Banerjee) ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তদন্তের দাবি জানালেন কুণাল ঘোষ। তৃণমূলের (Trinamool Congress) দু’টি পদে ইস্তফা দেওয়ার পরেই সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করেন কুণাল। তৃণমূল সাংসদের বিরুদ্ধে বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ রাখার মতো গুরুতর অভিযোগ আনেন তিনি। এবার সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট নিয়ে তদন্তের দাবি জানালেন তৃণমূলের সদ্য প্রাক্তন রাজ্য সাধারণ সম্পাদক।

.@dir_ed @CBIHeadquarters
The bank accounts of Sudip Banerjee, MP and payments on behalf of him to Apollo, Bhubaneswar must be investigated.
When he was in custody, whether a large amount paid to him or paid to hospital on behalf of him or not, that should be probed. If it is… — Kunal Ghosh (@KunalGhoshAgain) March 2, 2024
ইডির (ED) ডিরেক্টর এবং সিবিআইয়ের (CBI) সদর দফতরকে ট্যাগ করে আজ সকালে নিজের এক্স হ্যান্ডেলে একটি পোস্ট করেন কুণাল ঘোষ। তৃণমূল নেতা লিখেছেন, সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট (Bank Account) এবং তাঁর তরফ থেকে ভুবনেশ্বর অ্যাপোলোকে দেওয়া টাকা নিয়ে তদন্ত হওয়া উচিত।

আরও পড়ুন: ‘স্কিমকে স্ক্যামে পরিণত করায় মাস্টারি করেছে তৃণমূল’! কৃষ্ণনগরে দাঁড়িয়ে সুর চড়ালেন প্রধানমন্ত্রী

কুণাল লেখেন, ‘তিনি যখন হেফাজতে ছিলেন সেই সময় তাঁকে মোটা অঙ্কের টাকা দেওয়া হয়েছে কিনা অথবা তাঁর হয়ে হাসপাতালকে টাকা দেওয়া হয়েছে কিনা তা নিয়ে যথাযথ তদন্ত হওয়া উচিত। এটা সত্যি হলে, এর সঙ্গে কয়লা-কেলেঙ্কারির যোগসূত্র থাকতে পারে। এই প্রসঙ্গে আরও তদন্তের স্বার্থে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করা উচিত’।

kunal sudip

এখানেই থামেননি তৃণমূল নেতা। এক্স হ্যান্ডেলে তাঁর হুঁশিয়ারি, ‘এজেন্সি যদি এটা এড়িয়ে যেতে চায়, তাহলে এই বিষয়ে তদন্ত চেয়ে আমি নিম্ন আদালতের দ্বারস্থ হব’। লোকসভা ভোটের আগে আচমকাই তৃণমূলের দু’টি পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করেন কুণাল ঘোষ। তিনি বলেন, ‘বিজেপিটা তো সুদীপ ব্যানার্জি চালান। সুদীপবাবুর একটু অসুবিধা হচ্ছে যাঁকে দেখতে পারতেন না সে কাউন্সিলর হয়ে গিয়েছে। সে বিজেপিতে জয়েন করেছে বলে একটু অসুবিধা হচ্ছে’।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর