‘ইংরেজি গান শিখি, খুব বড় ভক্ত’, এক এক করে জনপ্রিয় গানের নাম শোনালেন মুখ্যমন্ত্রী

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee), বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তিনি, তবে এর বাইরেও তার একটা বিশেষ পরিচয় রয়েছে। এক শিল্পীসত্তার মানুষ মুখ্যমন্ত্রী। গান, আঁকা, কবিতা সবেতেই তার গভীর টান। একাধিকবার প্রকাশ্যে রবীন্দ্র সংগীত গাইতে শোনা গিয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমোকে। এমনকী মমতার দেওয়া সুরে মুক্তিও পেয়েছে গান। বৃহস্পতিবার আলিপুরে অত্যাধুনিক ধনধান্য স্টেডিয়াম উদ্বোধন করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেখান থেকেই গান নিয়ে নিজের ভালোলাগার কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন অডিটোরিয়ামের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, শুধু বাংলা নয়, তিনি ইংরেজি গানও (English Songs) শোনেন। মমতা বলেন, “বাংলায় অনেক ভালো শিল্পী রয়েছেন। আমি তাদের গানের খুব প্রশংসা করি, কিন্তু নতুন প্রজন্মকেও তুলে আনতে হবে। আমি রাজনীতি করার সময় একটার পর একটা জেনারেশন তৈরি করেছি। আমরা খুব নজরুলগীতি, রবীন্দ্র সংগীত গাইতাম।”

শুধু তাই নয়, মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমি ইংরেজি গানেরও খুব ভক্ত। আমি ইংরেজি গানও শিখি। হান্ড্রেড মাইল থেকে শুরু করে এভরি নাইট ইন মাই ড্রিমস সব গান আমি জানি। আমি হিন্দি গানও অনেক জানি।” এরপরেই গড়গড় করে জাস্টিন টিম্বারলেক থেকে শুরু করে টাইটানিকের বিখ্যাত গানের গায়ক সেলিন ডিওনের নাম বলে যান মুখ্যমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি রেডরোডে কেন্দ্রীয় বঞ্চনার প্রতিবাদে টানা দুদিন ধর্না দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে কলকাতা, যাদবপুর ও প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের এই ‘জয়ী’ নামের একটি ব্যান্ডও তৈরী করে দেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই প্রসঙ্গ তুলে এদিন মমতা বলেন, “আমি যখন ধরনা দিয়েছিলাম, তখন ছাত্রদের দল রাতের বেলা গিটার নিয়ে দারুণ গান করছে। আমি তাদের বললম, তোরা ভালো গান করিস। মিলেমিশে একটা ব্যান্ড তৈরি কর। নতুন প্রজন্মদের তুলে আনতে হবে।”

mamata banerjee alipore auditorium

এদিন সাধারণ মানুষের উন্নয়নে মমতা সরকারের বিভিন্ন কাজ ও সামাজিক প্রকল্প চালু করা নিলেও মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “জন্ম থেকে মৃত্যু সব কিছু নিয়ে আমাদের প্রকল্প রয়েছে। এত কাজ করার পর নেতিবাচক প্রচার হয়। আমরা সীমিত সামর্থের মধ্যে যখন যেটা পেরেছি করেছি। আমার নিজের বলতে কিছু নেই। একটাই জিনিস চাই, মানুষ যাতে কখনও আমাকে ভুল না বোঝে।”

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর