টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গবিধানসভা নির্বাচনরাজনীতি

১০ জনের আত্মা ঘুরে বেড়াচ্ছে! হলদিয়ার গেস্ট হাউজের ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা শেয়ার করলেন মমতা ব্যানার্জী

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ভোট প্রচারে বেরিয়ে চলছে বিরোধীদের আক্রমণের লড়াই। এই তালিকায় রয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীও (mamata banerjee)। বেশিরভাগ সময়ই নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বিরোধীদের আক্রমণ করতেই ব্যস্ত থাকেন নেতৃত্বরা। সেইসঙ্গে বঙ্গবাসীকে দেওয়া হয় নানা প্রতিশ্রুতি বার্তাও।

একই রূপে দেখা যায় মুখ্যমন্ত্রীকেও। তবে নন্দীগ্রামের আমদাবাদ হাইস্কুল গ্রাউন্ডের জনসভায় সোমবার বিরোধীদের কোণঠাসা করার পাশাপাশি এক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার কথা শোনালেন মুখ্যমন্ত্রী। আসন্ন বিপদের আঁচ আগে থাকতেই করতে পারেন বলেও জানালেন তিনি।

তৃণমূল নেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী নন্দীগ্রামবাসীদের বললেন, ‘প্রথমে গুলি চলল ১৪ ই মার্চ। তারপর সূর্যোদয় হল। এখনও রক্তের দাগ লেগে আছে বলে মনে হয় হলদি নদীতে। তারপর একবার হলদিয়ায় গিয়ে হলদি নদীর সামনে একটা গেস্ট হাউজে ছিলাম। আপনারা শুনলে হয় বিশ্বাস করবেন না, কোন বিপদের আঁচ আমি আগে থাকতে বুঝতে পারি। সেদিনই তাই হয়েছিল, আমাকে সমস্যায় পড়তে হল’।

এরপর মুখ্যমন্ত্রী বললেন, ‘ওই গেস্ট হাউজে ঢুকেই আমার মনে হল এখানে ১০ জনের লাশ রয়েছে। কিন্তু খুঁজে পাওয়া যায়নি। তবে কত মানুষ ওখানে নিখোঁজ ছিলেন। হয়ত এখনও তাদের আত্মা সেখানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এসব ভাবতে ভাবতেই হঠাত ‘ধপাস’ করে পড়ে গেলাম। কিন্তু কপাল জোরে কিছু হয়নি আমার। মাথা ফেটে যেতেও পারত, তবে আমি বেঁচে গেছিলাম। তবে কি বলুন তো, একটা ধাক্কা দিয়ে গেল আমাকে। আমার ধারণা ওই লোকগুলোর আত্মা এখনও বিচারের আশায় ওখানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তাই আমি আর ওখানে কোনদিনও যাইনি’।

Related Articles