ভয়াবহ অগ্নিকান্ড প্রাথমিক স্কুলে, কয়েক মিনিটের মধ্যেই চলে গেল এক নিস্পাপ প্রাণ, উদ্ধার ৩৮০ ছাত্রী

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বড়সড় দুর্ঘটনার কবলে ছত্তিশগড়ের (Chhattisgarh) সরকারি স্কুল। ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড (Fire Breaks Out At School) রাজ্যটির আদিবাসী অধ্যুষিত বিজাপুর জেলার একটা সরকারি স্কুলে। দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে লিপাক্ষী নামের এক স্কুল ছাত্রী। সূত্রের খবর, ঐ শিশুটির বয়স ছিল মাত্র চার। এছাড়াও উদ্ধার করা হয়েছে প্রায় ৩৮০ জন ছাত্রীকে।

   

সূত্রের খবর, আগুন লাগার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে আসে দমকল বাহিনী। দমকল বাহিনী এবং স্থানীয়দের মিলিত প্রচেষ্টায় বৃহস্পতিবার ভোরের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ঘটনাস্থলে হাজির হয়েছে তদন্তকারী কর্মকর্তারাও। ইতিমধ্যেই আগুন লাগার কারণ খুঁজতে শুরু করেছে তদন্তকারী কর্মকর্তারাও।

সূত্রের খবর, আগুন লেগেছিল বুধবার গভীর রাতে আভাপল্লী থানার অন্তর্গত চিন্তাকোন্তা গ্রামে। ঐ গ্রামেরই একটি গার্লস হস্টেলের একটি পোর্ট-কেবিন স্কুলে আগুন লাগে। ঘটনার খবর মিলতেই সেখানে এসে হাজির হয় দমকল বাহিনী। উদ্ধারকারী এবং স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় মোট ৩৮০ জন ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। পরে জানা যায় এক ছাত্রীর বোন নিখোঁজ।

এবং সেই নিখোঁজ শিশুটি ছিল লিপাক্ষী। ফের একবার খোঁজ শুরু হতে তার দগ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করে দমকল বাহিনী। দেহ শনাক্ত না হলেও উদ্ধারকারীদের ধারণা ঐ দেহটি লিপাক্ষীর। উল্লেখ্য, দুর্ঘটনার তিন চারদিন আগেই তিম্মাপুর থেকে ছত্তিশগড়ের পোটা কেবিনে এসেছিল লিপাক্ষী। তারপর থেকে সে তার দিদির কাছেই ছিল।

school 1709785769

এইদিন দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে এক কর্মকর্তা জানান, আগুনের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে গ্রামবাসীর সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনাস্থল থেকে প্রাপ্ত দৃশ্য ও ছবি থেকে জানা যায় আগুনে কেবিনের কাঠামো সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর