সারা মুখ জুড়ে ফুটো, ঝুলছে অজস্র দুল! জনপ্রিয় বলিউড অভিনেতা আজ পেটের দায়ে চা বিক্রেতা

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক: সবাই তাঁকে চেনে কাশী সাহা (Kashi Saha) বা কাশী ড্যান্সার হিসাবে। রাস্তায় চলতা ফিরতা আর পাঁচজন মানুষের মতো নন তিনি। তাঁর মুখ একবার দেখলে ভুলতে পারা কঠিন। কারণ তাঁর প্রায় গোটা মুখ জুড়ে ফুটো। প্রতিটাতেই ঝুলছে ছোট বড় নানান রকম দুল। দুই ভ্রু, নাক, ঠোঁট, গাল বাদ নেই কিছুই। দুলের ভারে কান প্রায় ঢাকা পড়ার উপক্রম। তিনিই কাশী সাহা, একসময় যিনি ছিলেন বলিউড টলিউডের চেনা মুখ।

কার্তিক চন্দ্র সাহা, এলাকার মানুষের কাছে অবশ্য তিনি শুধু ‘কাশী’। নিবাস হাবড়ার আশুতোষ কলোনি। নিজেকে ড্যান্সার, ফাইটার এবং অভিনেতা হিসেবে পরিচয় দেন তিনি। এক সময়ে বলিউডি ছবিতে ভিলেন হিসেবে বেশ জনপ্রিয়তা ছিল তাঁর। স্ক্রিন শেয়ার করেছেন জয়া প্রদার মতো অভিনেত্রীদের সঙ্গে।

kashi

কিন্তু সেসব দিন আজ অস্তগত। হাবড়ার মানুষের কাছেই এখনো পর্দার ‘ভিলেন’ হিসেবে জনপ্রিয় কাশী সাহা। এক ডাকে চেনে তাঁকে মানুষ। কিন্তু এই জনপ্রিয়তা বিশেষ কাজে আসেনি তাঁর। রূপোলি জগতে আর ডাক পান না কাশী। সংসার চালাতে এক চিলতে চায়ের দোকানই ভরসা তাঁর। খরিদ্দার আকর্ষণ করতে নিজেকে কষ্ট দিতেও দুবার ভাবেননি কাশী।

তাঁর মুখ জুড়ে ১০০ টিরও বেশি দুল। কাশীকে এভাবেই দেখে অভ্যস্ত হাবড়ার মানুষ। ছোট থেকেই নাচের প্রতি আগ্রহ ছিল তাঁর। পরিচিতিও পেয়েছিলেন ড্যান্সার হিসাবে। অচিরেই কাশী ঝোঁকেন স্টান্টের দিকে। বিভিন্ন মঞ্চে প্রকাশ্যে স্টান্ট দেখিয়ে এক সময়ে হাততালি কুড়িয়েছেন প্রচুর। বেশ কিছু হিন্দি ছবিতে ভিলেন হয়ে মুখ দেখিয়েছেন কাশী। কাজ করেছেন সিরিয়ালেও। বম্বে থেকে তামিলনাড়ুও ঘোরা হয়ে গিয়েছে তাঁর।

kashi saha

ইন্ডাস্ট্রি ভুলেছে কাশীকে। কিন্তু ছেলের কাছে বাবা ভিলেন নন, ‘হিরো’। উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করা ছেলেকে নাচ, ক্যারাটে শিখিয়ে নিজে হাতে তৈরি করছেন তিনি। ছেলের চোখ দিয়েই স্বপ্ন দেখছেন কাশী। তাঁর কথায়, এটাই এখন জীবন হয়ে গিয়েছে তাঁর। এত দুল নিয়ে সমস্যা হয় না? তাঁর উত্তর, তেমন অসুবিধা হয় না। শুধু কাত হয়ে শুতে পারেন না তিনি। সবসময় চিৎ হয়েই শুতে হয় তাঁকে। কাশী বলেন, তিনি চান মঞ্চে পারফর্ম করতে করতেই যেন তাঁর মৃত্যু হয়।

Avatar
Niranjana Nag

সম্পর্কিত খবর