ধোপে টিকল না CBI-র যুক্তি! নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এবার হাইকোর্টে জামিন পেলেন এই ব্যক্তি

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ২০২২থেকে নিয়োগ দুর্নীতি (Recruitment Scam) ইস্যুতে তোলপাড় গোটা রাজ্য। সময় যত গড়াচ্ছে পেঁয়াজের খোসা ছাড়ানোর মতো একের পর এক বিস্ফোরক তথ্য রোজ সামনে আনছেন তদন্তকারীরা। এখনও শিক্ষক কেলেঙ্কারির অভিযোগে জেল বন্দি রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী, শাসকদলের বহু দুঁদে নেতা, শিক্ষা দফতরের আধিকারিকদের পাশাপাশি জেলবন্দি আরও অনেকে। তদন্ত এখনও শেষ নক হলেও নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে একের পর এক জামিন (Bail)।

   

নিয়োগ মামলায় ফের জামিন। শর্তসাপেক্ষে মুক্তি পেলেন প্রদীপ সিং ওরফে ছোটু নামের এক ‘মিডলম্যান’। চাকরি বিক্রিতে বড় ভূমিকা ছিল এই মিডিলম্যানদের। এমনটাই প্রথম থেকে দাবি করে আসছে ইডি-সিবিআই। বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। তাদের মধ্যেই এবার প্রদীপ সিং জামিনে ছাড়া পেলেন।

সোমবার কলকাতা হাইকোর্টের (Calcutta High Court) বিচারপতি জয়মাল্য বাগচির ডিভিশন বেঞ্চ প্রদীপের জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেছে। নিয়োগ দুর্নীতিতে যোগ সরাসারি না থাকলেও প্রদীপের বিরুদ্ধে ‘মিডলম্যান’ হিসেবে কাজ করার অভিযোগ ওঠে। অযোগ্য প্রার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের থেকে বিভিন্ন তথ্য নিয়ে স্কুল সার্ভিস কমিশনের তৎকালীন উপদেষ্টা কমিটির সদস্যদের কাছে পাঠাতেন এই প্রদীপ। এমনটাই দাবি সিবিআই এর।

পাশাপাশি উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারম্যান শান্তিপ্রসাদের সঙ্গেও প্রদীপের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। অভিযোগের ভিত্তিতে ২০২২ সালের অগস্ট মাসে তাকে গ্রেফতার করে সিবিআই। এরপর তার সূত্র ধরেই প্রসন্ন রায়কে গ্রেফতার করা হয়। যদিও গত বছরই সুপ্রিম কোর্ট থেকে জামিন পেয়েছেন প্রসন্ন।

আরও পড়ুন: ‘অভিষেকের এত সম্পত্তি কিভাবে? হিসেব দিক’, তৃণমূল ‘সেনাপতি’কে চ্যালেঞ্জ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের

গত বছর নভেম্বর মাসে চাকরি বিক্রির অন্যতম দালাল প্রসন্ন রায়কে (Prasanna roy) জামিন দেয় সর্বোচ্চ আদালত। প্রসন্নর হয়ে টাকা তুলতেন প্রদীপ। সোমবার এই যুক্তিতে প্রদীপের জামিনের বিরোধীতা করে সিবিআই। তবে পর্যবেক্ষণে হাইকোর্ট জানায়, প্রসন্নর জামিন মঞ্জুর করেছে সুপ্রিম কোর্ট। তাই প্রদীপের জামিনের ব্যাপারে আপত্তি থাকার প্রশ্ন ওঠে না।

high court

প্রসঙ্গত, নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে সর্বপ্রথম জামিন পেয়েছিলেন মানিক ভট্টাচার্যের স্ত্রী (Manik Bhattacharya) স্ত্রী শতরূপা ভট্টাচার্য। এরপর ওএমআর শিট (OMR Sheet) কারচুপিতে অভিযুক্ত নাইসার ভাইস প্রেসিডেন্ট নীলাদ্রি দাসকে (Niladri Das) ৩০০০০ টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন দেয় আদালতে। নভেম্বরে জামিন পান প্রসন্ন। আর এবার জামিন পেলেন ‘মিডলম্যান’ প্রদীপ।

সম্পর্কিত খবর