টাইমলাইনবিনোদন

বার কাউন্টারের সামনে একে অপরকে জড়িয়ে ধরে দাঁড়িয়ে মিমি-নুসরত! ছবি তুললেন যশ

বাংলাহান্ট ডেস্ক: এক সময়ে টলিউডে বন্ধুত্বের কথা উঠলেই অনেকে নুসরত জাহান (Nusrat Jahan) এবং মিমি চক্রবর্তীর (Mimi Chakraborty) প্রসঙ্গ তুলতেন। দুজনের গভীর বন্ধুত্ব বহুবার নিদর্শন হিসাবে উঠে এসেছে। নায়িকারা নাকি ভাল বন্ধু হতে পারে না, এ ধারণা নস‍্যাৎ করে দিয়েছিলেন মিমি নুসরত। একে অপরের ‘বোনুয়া’ হয়ে শুধু অভিনয় জগতে নয়, রাজনীতির জগতেও একে অপরের পাশে ছিলেন।

হঠাৎ করেই সেই বন্ধুত্বে যেন তাল কাটে। গুঞ্জন ছড়িয়েছিল, যশ দাশগুপ্ত নুসরতের জীবনে আসার পরেই ধীরে ধীরে বোনুয়ার জীবন থেকে সরে আসেন মিমি। এমনকি নুসরতের অন্তঃসত্ত্বা হওয়া নিয়ে যখন বিতর্কের পারদ চড়ছে, তখনো ওই বিষয়ে যেকোনো কথা উঠলেও এড়িয়ে যেতেন মিমি।


যদিও জানা গিয়েছিল, অভিনেত্রী নাকি ভুলে যাননি নিজের বন্ধুকে। নিজে হাতে রেঁধে খাবার পাঠিয়েছিলেন তাঁকে। আবার ছোট্ট ঈশানের জন‍্য উপহারও পাঠিয়েছিলেন মাসি মিমি। এবার দুই বন্ধুর নতুন একটি ছবি শেয়ার করলেন নুসরত পতি যশ দাশগুপ্ত।

উজ্জ্বল মডার্ন পোশাকে একে অপরকে জড়িয়ে ধরে বার কাউন্টারের সামনে দাঁড়িয়ে মিমি নুসরত। হাসিমুখে যশের ক‍্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছেন দুজনে। ছবিটি শেয়ার করে অভিনেতা লিখেছেন, ‘এই বন্ধনটা’। সঙ্গে একটি হৃদয়ের ইমোজি। জানা যাচ্ছে, কলকাতার ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষের মেয়ের জন্মদিনে অতিথি হয়ে এসেছিলেন মিমি নুসরত। সেখানেই একসঙ্গে লেন্সবন্দি হন তাঁরা


মোটামুটি একই সময়ে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন মিমি নুসরত। বন্ধুত্বও তখন থেকেই। পরবর্তীকালে একসঙ্গে রাজনীতির আঙিনায় পা রাখেন মিমি নুসরত। বন্ধুত্ব আরেকটু গাঢ় হয়। নুসরতের বিয়েতে কনেযাত্রী হয়ে গিয়েছিলেন মিমি। বিয়েবাড়ি সেরে দুজনে একসঙ্গে লোকসভার নব নির্বাচিত সাংসদ হিসাবে শপথ নিয়েছিলেন।

সবটা ভালোই চলছিল। হঠাৎ করেই ছন্দপতন। নিখিল জৈনের সঙ্গে বিয়ে অস্বীকার করে যশ দাশগুপ্তের দিকে ঝুঁকতেই ধীরে ধীরে নুসরতের সঙ্গ ছেড়ে দূরে সরতে থাকেন মিমি। বহুদিন ধরেই দুজনের মধ‍্যে দূরত্বটা স্পষ্ট হয়েছে। এখন মাঝেমধ‍্যে নুসরতের ছবিতে মিমি কমেন্ট করলেও দুজনের সম্পর্কের গভীরতা যে আগের মতো আর নেই তা বুঝতে পারছেন সকলেই।

Related Articles