fbpx
টাইমলাইনটেক নিউজবিনোদনভিডিও

করোনার সঙ্গে আরও এক চিনা ভাইরাস শেষ, টিকটকের বিরুদ্ধে সরব মুকেশ খান্না

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বেশ কিছুদিন ধরেই সংবাদ শিরোনামে রয়েছে টিকটক (tiktok) ও ইউটিউবের (youtube) বিবাদ। টিকটকার আমির সিদ্দিকি ও জনপ্রিয় ইউটিউবার ক‍্যারিমিনাতির বিবাদের পরেই ট্রেন্ডিং হতে শুরু করে ইউটিউব ও টিকটক। এরই মাঝে আমিরের ভাই ফয়জল সিদ্দিকির একটি ভিডিওতে মহিলাদের ওপর অ্যাসিড অ্যাটাকের প্রচার করায় তাঁর অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। টিকটকের রেটিংও এক ধাক্কায় নেমে আসে অনেকটাই। এবার বর্ষীয়ান অভিনেতা মুকেশ খান্নাও (mukesh khanna) মুখ খুললেন টিকটকের বিরুদ্ধে।


নিজের ইনস্টা হ‍্যান্ডেলে একটি ভিডিও বার্তায় তিনি তিনি বলেন, ‘দুনিয়াতে টিকটক করা ছাড়াও আরও অনেক কাজ আছে। করোনার মধ‍্যে একটিই ভাল খবর এসেছে যে আরও একটি চিনা ভাইরাস টিকটক সরে যাওয়ার মুখে। এর রেটিং ৪.৫ থেকে কমে ১.৬ তে দাঁড়িয়েছে। ধন‍্যবাদ আপনাদের যারা টিকটকের মতো চিনা প্রোডাক্ট ব‍্যবহারের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছেন।’

View this post on Instagram

टिक टोक टिक टोक घड़ी में सुनना सुहावना लगता है। लेकिन आज की युवा पीढ़ी का घर मोहल्ले सड़क चौराहे पर चंद पलों की फ़ेम पाने के लिए सुर बेसुर में टिक टोक करना बेहुदगी का पिटारा लगता है।कोरोना चायनीज़ वाइरस है ये सब जान चुके हैं।पर टिक टोक भी उसी बिरादरी का है ये भी जानना ज़रूरी है। टिक टोक फ़ालतू लोगों का काम है।और ये उन्हें और भी फ़ालतू बनाता चला जा रहा है।अश्लीलता, बेहुदगी, फूहड़ता घुसती चली जा रही है आज के युवाओं में इन बेक़ाबू बने विडीओज़ के माध्यम से। इसका बंद होना ज़रूरी है।ख़ुशी है मुझे कि इसे बाहर का रास्ता दिखाया जा रहा है।मैं इस मुहिम के साथ हूँ।

A post shared by Mukesh Khanna (@iammukeshkhanna) on

উল্লেখ‍্য, এর আগে ইউটিউবার ক‍্যারিমিনাতির সপক্ষেও মুখ খুলতে দেখা গিয়েছিল মুকেশকে। একটি ভিডিওতে তিনি বলেছিলেন, তিনি ক‍্যারিমিনাতিকে সমর্থন করে। তাঁর ভিডিও সরিয়ে দেওয়া উচিত হয়নি। যদি সরাতেই হয় তাহলে সেইসব ভিডিও সরানো হোক যা আপত্তিজনক।
প্রসঙ্গত, সম্প্রতি জানা গিয়েছে কাস্টিং ডিরেকটর নূর সিদ্দিকিকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে টিকটকার আমির সিদ্দিকির টিকটক অ্যাকাউন্ট। ৩.৮ মিলিয়ন ফলোয়ার ছিল আমিরের। সম্প্রতি জনপ্রিয় ইউটিউবার ক‍্যারিমিনাতির সঙ্গে বিবাদের জন‍্য সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছেন আমির।
ভারসোভা থানায় আমির সিদ্দিকির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৪, ৫০৬ ও ৫০৭ ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। এছাড়া আমিরের বিরুদ্ধে মানহানির মামলাও দায়ের করেছেন নূর। ক্ষমাপ্রার্থনা ও ক্ষতিপূরণের জন‍্য ১৪ দিনের সময় দেওয়া হয়েছে আমিরকে।

Back to top button
Close
Close