রাত ৩টের সময় সিজিওতে ED-র মিটিং! খাদ্যমন্ত্রীর বাড়ি ছাড়া আজ কোথায় কোথায় চলছে তল্লাশি?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গত বছর থেকে নিয়োগ দুর্নীতিকাণ্ডে তোলপাড়! জেলবন্দি রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী থেকে শুরু করে বহু শাসকদলের নেতা, বিধায়ক সহ শিক্ষা দফতরের বহু আধিকারিক। এরই মধ্যে এবার পুরসভা নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় খাদ্যমন্ত্রী রথীন ঘোষের (Rathin Ghosh) বাড়িতে ইডি (Enforcement Directorate) হানা। চলছে তল্লাশি।

   

সূত্রের খবর পুরসভা নিয়োগ দুর্নীতি (Municipality Recruitment Scam) মামলায় এদিন সাতসকালে রথীন ঘোষের মাইকেলনগরের বাড়িতে পৌঁছে যান ইডি আধিকারিকরা। এখানেই শেষ নয়, বৃহস্পতিবার রাজ্যের আরও বহু জায়গায় তল্লাশি চালাচ্ছেন ইডির গোয়েন্দারা। সূত্রের খবর এমনটাই।

জানা গিয়েছে, গতকাল রাত ৩টে নাগাদ সিজিও কমপ্লেক্সে সমস্ত ED-র অফিসারদের ডেকে বৈঠক চলে। মোট ৮০ জন ED অফিসারকে একাধিক দলে ভাগ করে নেওয়া হয়। এরপর ভোরেই বেরিয়ে পড়েন তারা। গোটা রাজ্যজুড়ে আজ ১২টি জায়গায় তল্লাশি চলছে বলে জানা গিয়েছে।

ইডি সূত্রে খবর বিভিন্ন পুরসভার চেয়ারপার্সন ও পুরসভার আধিকারিকদের বাড়িতেও আজ চিরুনি তল্লাশি চলছে। তালিকায় রয়েছে কামারহাটি পুরসভার চেয়ারম্যান গোপাল সাহা,দক্ষিণ দমদম পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই দত্ত, বরানগর পুরসভার চেয়ারম্যান অপর্ণা মৌলিকের বাড়িও।

আরও পড়ুন: পড়ুয়াদের মন খারাপ করা খবর! কমবে পুজোর ছুটি? খোলা থাকবে স্কুল, কী জানাচ্ছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ?

প্রসঙ্গত, রাজ্যে শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির তদন্ত করতে গিয়ে পুর নিয়োগ দুর্নীতি খোঁজ পায় তদন্তকারী সংস্থা। তারপরই আদালতের নির্দেশে শুরু হয় তদন্ত। একাধিক পুরসভায় চলে তল্লাশি, চেয়ে পাঠানো হয় দীর্ঘদিনের নথি। কয়েকজন পুর অধিকারীকেও এই নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। তবে পুর নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় এই প্রথম কোনও মন্ত্রীর বাড়িতে হানা দিল ইডি।

rathin g

সূত্রের খবর, এদিন সকাল ৬টা নাগাদ খাদ্যমন্ত্রীর মাইকেল নগরে বাড়িতে পৌঁছে যায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। চলছে চিরুনি তল্লাশি। উল্লেখ্য, বিধায়ক তথা মন্ত্রী রথীন ঘোষ মধ্যমগ্রাম পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান। জানা যাচ্ছে, নিয়োগ দুর্নীতিতে ধৃত অয়ন শীলের সূত্র ধরেই মন্ত্রীর নাম উঠে আসে।

এই অয়ন শীলের সংস্থা ABS ইনফোজোনের অফিস থেকে পুর নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে বেশ কিছু নথি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। ইডি সূত্রে খবর সেই সমস্ত বিভিন্ন নথি খতিয়ে দেখে বারবার খাদ্যমন্ত্রীর নাম উঠে আসছে। মিলেছে আর্থিক লেনদেনের প্রমাণও।

ED সূত্রে খবর, পুরসভায় নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে টাকা-পয়সা লেনদেনের প্রমাণও উঠে এসেছে। বিপুল পরিমাণে দুর্নীতি হয়েছে। এর মধ্যে কারা কারা জড়িত, কাদের কাছে দুর্নীতির টাকা পৌঁছেছে, এই সব প্রশ্নের উত্তরই মরিয়া হয়ে খুঁজছে ইডি।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর