“যাদবপুরে যাওয়াই কাল হল”….’ভালো ছেলে’ স্বপ্নদীপ ‘শেষ’ হয়ে যেতেই মুখ খুললেন প্রতিবেশীরা

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় (Jadavpur University) প্রথম বর্ষের ছাত্র স্বপ্নদ্বীপের মৃত্যুতে দানা বেঁধেছে রহস্য। স্বপ্নদ্বীপের মৃত্যু আত্মহত্যা নাকি খুন, তা নিয়ে এখনো চলছে চাপানউতোর। নদীয়ার (Nadia) বগুলার বাসিন্দা স্বপ্নদ্বীপ কুন্ডু এলাকায় ভালো ছেলে বলে পরিচিত ছিলেন।

সম্প্রতি উচ্চ শিক্ষা লাভের জন্য সে ভর্তি হয় যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়। কলেজ হোস্টেলে থেকে শুরু করে পড়াশোনা। কিন্তু আচমকাই ছন্দপতন। বুধবার রাতে শেষবারের মতো পরিবারের সাথে কথা হয় তার। ফোনে সে তার মাকে জানায় হোস্টেলে তার ভয় করছে। এরপর আনুমানিক রাত সাড়ে বারোটা নাগাদ পরিবারের কাছে স্বপ্নদ্বীপের মৃত্যু সংবাদ পৌঁছায়।

কলেজের পক্ষ থেকে স্বপ্নদ্বীপের পরিবারকে জানানো হয় ছাদ থেকে সে পড়ে গিয়েছে। চিকিৎসার জন্য তাকে পাঠানো হয়েছে হাসপাতালে। কিন্তু হাসপাতালে মৃত্যু হয় এই মেধাবী ছাত্রের। স্বপ্নদ্বীপের মৃত্যুর পর উঠতে থাকে র‌্যাগিং প্রসঙ্গ। পরিবারের অভিযোগ প্রথম বর্ষের ছাত্র স্বপ্নদ্বীপ কুন্ডু র‌্যাগিং এর শিকার।

img 20230811 12274259

অভিযোগ উঠেছে স্বপ্নদ্বীপের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। মেধাবী এই ছাত্রের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নিয়ে এসেছে তার এলাকায়। প্রতিবেশীরা জানাচ্ছেন এলাকায় বেশ ভালো ছেলে হিসাবে পরিচিতি ছিল তার। এক প্রতিবেশীর কথায়, স্বপ্নদ্বীপ খুব একটা মেলামেশা করত না।

আরোও পড়ুন : ডিম তো রোজই খান! কিন্তু সাদা অংশটার নাম কী ? উত্তর জানেন না ৯৯% ব্যক্তি

তবে ভালো ছেলে বলেই পরিচিত ছিল। পাঁচ দিন হল যাদবপুরে ভর্তি হয়েছে সে। তার মধ্যেই এই ঘটনা। আমরা এই ঘটনার তদন্ত চাইছি। শিক্ষা প্রাঙ্গনে এই ধরনের ঘটনায় ভীতি তৈরি হবে অভিভাবকদের মনে। অভিভাবকরা চাইবেন না হোস্টেলে থেকে পড়াশোনা করুক তাদের সন্তান। তদন্ত করে সত্য সামনে আসুক।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর