রাজ্যে মহার্ঘ্য হতে চলেছে বিদ্যুৎ! এক ধাক্কায় ৪৪ থেকে ১০০% বাড়ছে খরচ, কত টাকা বেশি দিতে হবে?

   

বাংলা হান্ট ডেস্ক: আগামী দিনে এক ধাক্কায় বাড়তে চলেছে বিদ্যুতের খরচ। যার ফলে কার্যতা বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়া মহার্ঘ হয়ে উঠতে চলেছে। ট্রান্সফরমার প্রতিস্থাপন থেকে শুরু করে নতুন ইলেকট্রিক কানেকশন নেওয়া প্রতি ক্ষেত্রেই দাম বাড়তে চলেছে ব্যাপক হারে। এই বিষয়ে রেগুলেটরি কমিশনে একটি প্রস্তাব দিয়েছে রাজ্যের   পাওয়ার কর্পোরেশন।

আর এই নতুন প্রস্তাবনা অনুমোদিত হলে বিভিন্ন গ্রামীন এলাকাতেও বিদ্যুৎ সংযোগ নেওয়ার হার বাড়বে ৪৪ শতাংশ। এছাড়াও শিল্পাঞ্চলে কারখানার প্রয়োজনে বিদ্যুৎ সংযোগ নেওয়ার ক্ষেত্রে খরচ ৫০ থেকে ১০০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়তে পারে। খুব তাড়াতাড়ি দাম বাড়বে ট্রান্সফর্মার মিটার ও বৈদ্যুতিক  খুঁটির মতো বিদ্যুতের প্রয়োজনীয় পণ্যের। পাওয়ার কর্পোরেশনের দেওয়া প্রস্তাব অনুযায়ী ভোগ্য পণ্যের দাম বাড়ার সাথেই শিল্প এবং বড় গ্রাহকদের নিরাপত্তার পরিমাণও ১০০% এর বেশি বাড়ানোর প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এতদিন পর্যন্ত ২ কিলোওয়াট শ্রম এবং ওভারহেড চার্জ ছিল ১৫০ টাকা। যা এবার এক ধাক্কায় বেড়ে করা হয়েছে ৫৬৪ টাকা।

রিপোর্ট অনুযায়ী, দ্বিতীয় মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর অর্থাৎ ২০১৯ সাল থেকে কিন্তু সেভাবে দামের হেরফের ঘটেনি। তবে এবার এক্ষেত্রে বড় পরিবর্তন আসতে পারে। আসুন জানা যাক বিভিন্ন বিদ্যুতিক সরঞ্জামের পণ্যগুলির বর্তমান দাম কত এবং দাম বাড়ার পরেই বা সেই দাম কত হতে পারে?

২৫ kVa ট্রান্সফরমার

৫৬৭৮০ টাকা

৬৯০০৬ টাকা

২২%

সিঙ্গল ফেজ মিটার

৮৭২ টাকা

৯১২ টাকা

৫%

আরও পড়ুন: কমেনি ভোগান্তি, এখনও ট্রেন লেট, কবে শিয়ালদায় স্বাভাবিক হবে পরিষেবা? কী বলছে পূর্ব রেল?

৩ ফেজ মিটার

২৯২১ টাকা

২২৮৫ টাকা

১৯%

পিসিসি পোল

২৭২১ টাকা

৩২৪৩ টাকা

১৯ %

বর্তমান ও পরিবর্তিত প্রসেসিং ফি

শুধুমাত্র ১ কিলোওয়াট লাইফলাইন

১০ টাকা

১০ টাকা

১ কিলোওয়াট লাইফলাইনের থেকে বেশি

৫০ টাকা

১০০ টাকা

Electricity

১ কিলোওয়াট থেকে বেশি কিন্তু ২৫ কিলোওয়াট থেকে কম

১০০ টাকা

১০০ টাকা

২৫ কিলোওয়াট থেকে ৫০ কিলোওয়াট

১০০০ টাকা

৫০০০ টাকা

৫৬ কেভিএ থেকে ৫০০ কেভিএ

৫০০০ টাকা

১০০০০ টাকা

৫০০ KVA থেকে ৩০০০ KVA

১০০০০ টাকা

১৫০০০ টাকা

৩০০০ KVA থেকে ১০০০০ KVA

১৫০০০ টাকা

২৫০০০ টাকা

১০০০০ KVA এর বেশি

২৫০০০ টাকা

৫০০০০ টাকা

এখানে বলে রাখি এই পরিবর্তন কিন্তু শুধুমাত্র উত্তরপ্রদেশেই হবে। পশ্চিমবঙ্গে এর কোনো প্রভাব পড়বে না। তাই আপাতত নিশ্চিন্তে থাকতে পারেন রাজ্যবাসী।

Anita Dutta
Anita Dutta

অনিতা দত্ত, বাংলা হান্টের কনটেন্ট রাইটার। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৪ বছরের বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা পেশার সাথে যুক্ত।

সম্পর্কিত খবর