ভারত

দেশে ফিরতে নারাজ নীরব মোদী, প্রত্যর্পণ প্রক্রিয়ায় ব্যঘাত দিতে নতুন চাল পলাতক হিরে ব্যবসায়ীর

বাংলা হান্ট ডেস্ক: চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতেই পলাতক হীরক ব্যবসায়ী নীরব মোদীকে ভারতে ফেরানোর ব্যাপারে সায় দিয়েছিল লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেটস কোর্ট।নীরব মোদী নিম্ন আদালত কর্তৃক প্রদত্ত প্রত্যর্পণের আদেশের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্তটিকে চ্যালেঞ্জ করার অনুমতি চেয়ে ব্রিটেনের হাইকোর্টে আবেদন করেছেন।

১৫ ই এপ্রিল যুক্তরাজ্য সরকার নীরব মোদীকে ভারতে হস্তান্তর করার আদেশে স্বাক্ষর করেছিল।”২৫ ফেব্রুয়ারি নীরব মোদীর প্রত্যর্পণের মামলায় জেলা জজ রায় দিয়েছেন। প্রত্যর্পণের আদেশে ১৫ই এপ্রিল স্বাক্ষর করা হয়েছিল,” যুক্তরাজ্যের হোম অফিসের মুখপাত্র জানিয়েছেন।

কিন্তু নীরবের কৌশলী চালে সেই আশা আপাতত জলাঞ্জলি দিতে হচ্ছে।শনিবার ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেটস কোর্টের রায় এবং ব্রিটেনের মুখ্য সচিব প্রীতি প্যাটেলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ব্রিটেনের হাই কোর্টে আবেদন জানিয়েছেন নীরব মোদি। তাঁর দাবি, ভারতে প্রত্যর্পণ করা হলে তিনি সুবিচার পাবেন না। কারণ, এদেশে তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র চলছে। তাছাড়া ভারতের তদন্তকারী সংস্থাগুলির কাছে তাঁর বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ নেই বলেও দাবি করেছেন এই অলঙ্কার ব্যবসায়ী। ভারতে জেলের মান নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। আপাতত ব্রিটেন হাই কোর্টের বিচার প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত নীরবকে দেশে ফেরাতে পারবে না ভারত সরকার।

জালিয়াতি এবং অর্থ তছরূপের অভিযোগে নীরব মোদীকে লন্ডনে মার্চ ২০১৯ সালে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল এবং পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকে (পিএনবি) প্রায় ১১ হাজার কোটি টাকার মানি লন্ডারিং ও প্রতারণা করার অভিযোগ আনা হয়েছিল।

Related Articles

Back to top button