টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

সাংসদ পদ নাকি নতুন বিধায়ক! নিশীথ-জগন্নাথের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব

বাংলাহান্ট ডেস্কঃ ২০০-র বেশি আসন নিয়ে বিজেপির (bjp) বাংলা দখলের স্বপ্ন কার্যত ধূলিস্মাৎ হয়ে যায়। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে আবারও বাংলার ক্ষমতায় ফেরে তৃণমূল (tmc) শিবির। নির্বাচনের ফলাফলের পর মুখ্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে সকল বিধায়করা শপথ নিয়ে নিলেও বিজেপির নিশীথ-জগন্নাথকে নিয়ে কিছুটা সংশয় তৈরি হয়। শপথ গ্রহণ না করায়, তাঁদের পরবর্তী সিদ্ধান্তের দিকে তাকিয়ে গোটা বাংলা।

সূত্রের খবর, শনিবার দিল্লীতে রাজ্য নেতৃত্বদের সঙ্গে আলোচনার পর জানা গিয়েছে- নির্বাচনে জিতেও বিধায়ক পদই ছাড়ছেন নিশীথ-জগন্নাথরা। পূর্বেকার সাংসদ পদেই বহাল থাকছেন তাঁরা। যার ফলে দিনহাটা ও শান্তিপুরে উপনির্বাচন করা হবে, এমনটাই খবর।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বাংলাকে টার্গেট করে লোকসভার ৪ সাংসদকে প্রার্থী করেছিল বিজেপি। কিন্তু কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় ও হুগলির সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায় পরাজিত হলেও, নির্বাচনে দিনহাটায় জয়ী হন নিশীথ প্রামাণিক এবং শান্তিপুরে দলকে জয় এনে দেন জগন্নাথ সরকার।

তবে একই ব্যক্তি একই সঙ্গে লোকসভা এবং বিধানসভার দুই আসনে থাকতে পারেন না। তাই নিয়ম অনযায়ী, এই দুই নব নির্বাচিত বিধায়করা যদি অন্যান্য বিধায়কদের সঙ্গে বিধানসভায় শপথ গ্রহণ করতেন, তাহলে আগামী দু’সপ্তাহের মধ্যে সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দিতে হত। কিন্তু তাঁরা এখনও অবধি শপথ নেননি। অন্যদিকে আগামী ৬ মাসের মধ্যেই তাঁদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে তাঁরা কোন পদটা বহাল রাখতে চান।

এপ্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপি-র এক শীর্ষ নেতা জানান, ‘কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নিশীথ-জগন্নাথের বিষয়ে। সিদ্ধান্তের বিষয়ে জানিয়েও দেওয়া হয়েছে তাঁদের। তবে কবে তাঁরা বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছেন, তা এখনও জানা যায়নি’।

Related Articles

Back to top button