“তুমি আছো বলে পেটের ছেলেকে ভাইপো বলে ডাকছে”! রাজ্য সরকারের তীব্র সমালোচনা পরমাত্মানন্দজি মহারাজের

বাংলা হান্ট ডেস্ক: কাশীতে (Kashi) সম্পন্ন হওয়া সর্বভারতীয় সন্ত সম্মেলনে সমগ্র রাজ্যের মধ্যে একমাত্র বাঙালি হিসেবে উপস্থিত থাকলেন মহামণ্ডলেশ্বর শ্রীমৎ স্বামী পরমাত্মানন্দজি মহারাজ (Paramatma Nandaji Maharaj)। এই সম্মেলনটি সংস্কৃতি সংসদ ২০২৩ নামেও বিবেচিত হচ্ছে। যেটিতে বক্তব্যও রেখেছেন পরমাত্মানন্দজি মহারাজ। সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, তিনি তাঁর বক্তব্যে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ দিক উপস্থাপনের মাধ্যমে রাজ্যের সামগ্রিক পরিস্থিতি সহ সরকারের কড়া সমালোচনা করেন।

এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে, জাতীয় স্তরের এই সম্মেলনে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উপস্থিত হয়েছিলেন সাধু-সন্ত এবং আধ্যাত্মিক ব্যক্তিরা। সেইখানেই নিজের বক্তব্য তুলে ধরেন পরমাত্মানন্দজি মহারাজ। এছাড়াও, তিনি তাঁর সম্পূর্ণ বক্তব্যটি নিজের মাতৃভাষা অর্থাৎ বাংলাতে বলেন। বক্তব্যের প্রথম থেকেই তিনি বিভিন্ন দিক থেকে রাজ্যের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন।

   

Paramatma Nandaji Maharaj's sharp criticism of the state government

তিনি জানান যে, “আমি এমন একটি রাজ্য থেকে এসেছি যেখানে জয় শ্রীরাম স্লোগানটি গালাগাল দেওয়ার মতো। আমরা জয় শ্রীরাম বললে এখানে আনন্দ পাই, আর সেখানে জয় শ্রীরাম বললে জেলে যেতে হয়। এই ভারতবর্ষের মধ্যেই সেই রাজ্য রয়েছে।” এছাড়াও তিনি বলেন, “আমাদের দেশেই এমন রাজ্য রয়েছে যেখানকার প্রশাসক বলেন গোমাংস খাওয়া আমার মৌলিক অধিকার। আমি সেইরকম এক রাজ্য থেকেই এসেছি।”

আরও পড়ুন: একমাসে মোট কতগুলি মামলা স্থগিত রাখার অনুরোধ করেছেন আইনজীবীরা? সংখ্যাটা চমকে দেবে

পাশাপাশি, পরকীয়ার প্রসঙ্গে তিনি জানান, “অন্যান্য মহাকাব্যের মহাপুরুষদের দেখলে বোঝা যাবে তাদের বহু পত্নী রয়েছে কিন্তু শ্রীরামচন্দ্রের একজন পত্নী ছিলেন। অথচ আমরা যেই রাজ্যে বাস করেছি সেখানে বলা হচ্ছে পরকীয়া প্রেম করা শাস্ত্রীয় অধিকার। এতে নাকি দেহ, মন ভালো থাকে।”

আরও পড়ুন: ইডেনে পাশাপাশি বসে ম্যাচ দেখবে তৃণমূল-বিজেপি? স্পিকার ‘গরম-গরম’ টিকিট দিতেই যা কাণ্ড হচ্ছে…

সবথেকে উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, বক্তব্যের শেষে পরমাত্মানন্দজি মহারাজ শ্লেষাত্মক কবিতার মাধ্যমে সরকারকে বিঁধেছেন। যেই কবিতায় তিনি, ভোটে দুর্নীতির বিষয় থেকে শুরু করে শোভন-বৈশাখীর প্রসঙ্গ, পার্থ-অর্পিতা ও শিক্ষামন্ত্রী-খাদ্যমন্ত্রীর হেফাজত সহ মদন মিত্র এবং মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধেও তোপ দেখেছেন। সরকারি কর্মচারীদের আন্দোলনের বিষয়টিও তাঁর কবিতায় উপস্থাপিত হয়। কবিতার একটি অংশে তিনি বলেন, “তুমি আছো বলে পেটের ছেলেকে ভাইপো বলে ডাকছে, তুমি আছো বলে আপন ছেলেকে চুরির শিক্ষা দিয়েছে, তুমি আছো বলে তোমার নেতারা চুরির দায়ে জেলে…।”

Sayak Panda
Sayak Panda

সায়ক পন্ডা, মেদিনীপুর কলেজ (অটোনমাস) থেকে মাস কমিউনিকেশন এবং সাংবাদিকতার পোস্ট গ্র্যাজুয়েট কোর্স করার পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। ২ বছরেরও বেশি সময় ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর