‘নীতিশের মত ১০০ জন মুখ্যমন্ত্রী এলেও ১০ লক্ষ চাকরি দিতে পারবে না!’, বিস্ফোরক প্রশান্ত কিশোর

বাংলা হান্ট ডেস্ক : তুলকালাম বিহার (Bihar)। গত বৃহস্পতিবার সে রাজ্য জুড়ে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা ছিল। নীতিশ সরকার (Nitish Kumar Government) ক্ষমতায় আসার আগে বলেছিলেন তিনি ১০ লক্ষ চাকরি দেবেন। এই যে পরীক্ষা হচ্ছে সেই পরীক্ষার উপর ভিত্তি করেই মহা জোট সরকার সেই ১০ লক্ষ চাকরির স্বপ্ন পূরণ করতে চাইছে।

   

বিহারে রীতিমতো বড়সড়ো করে হচ্ছে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা। কিন্তু এই বিষয়ে যখন নির্বাচন কুশলী প্রশান্ত কিশোরকে (Prashanta Kishore) জিজ্ঞাসা করা হয় তিনি বলেন ‘এখনই এত কিছু বলা সম্ভব নয়। পরীক্ষা হচ্ছে কিন্তু চাকরি কেউ নাও পেতে পারে পেতে পারেন। পরীক্ষার পর যদি প্রশ্নপত্র লিক করার খবর না আসে, যদি কোনও মামলা না হয় তাহলে বলা যাবে এই পরীক্ষা সফল। নাহলে তার আগে এত ঢাকঢোল পেটাবার কোন মানে হয় না।

nitish vs tejashwi yadav

বিহারে যাত্রা চলাকালীন ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর বলেন ‘এই মুহূর্তে এত কিছু বলা উচিত নয়। মহাজোট বন্ধন সরকার দু লক্ষ চাকরির ভেকেন্সি বের করেছে। এখনও চাকরি দেয়নি। আগে পরীক্ষা হোক প্রশ্নপত্র ফাঁস না হয়, যদি না আদালতে কোন মামলা হয় তাহলে পরীক্ষা সফল বলা যাবে।’

এদিন প্রশান্ত কিশোর কার্যত নিশানা করলেন নীতিশ কুমারকে। পিকে বলেন, ‘১৫ আগস্ট গান্ধী ময়দান থেকে নীতিশ কুমার ঘোষনা করে ছিলেন এক বছরের মধ্যে দশ লক্ষ চাকরি তিনি দেবেন। নীতিশের সময় শেষ। এবার তাঁর উত্তর দেওয়ার পালা। তাঁকে জবাব দিতেই হবে। বছরে যে দশ লক্ষ চাকরি দেওয়ার কথা তিনি দিয়েছিলেন কোথায় সেই চাকরি। তাকে কি কেউ প্রশ্ন করেন না আপনি তো ১৭ বছর মুখ্যমন্ত্রী, তাহলে এখন আপনি চাকরির ঘোষণা করছেন। সেসময় আমি বলেছিলাম নীতিশ সরকার যাদি ১০ লক্ষ চাকরি দিতে পারেন তাহলে আমি আমার সমস্ত আন্দোলন প্রত্যাহার করে নেব। সারা জীবন ওই দলের পতাকা নিয়ে ঘুরবো। তিনি আগে দশ লক্ষ চাকরির দিয়ে তো দেখান।’

ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর বলেন নীতিশ কুমারের মত ১০০ জন মুখ্যমন্ত্রীও যদি এসে যায় তাহলেও তাঁর পক্ষে ১০ লক্ষ চাকরি সম্ভব নয়। এরপরই পিকে নিশানা করেন তেজস্বী যাদবকে। তিনি বলেন, ‘একজন ক্যাবিনেট মন্ত্রী কিভাবে বলতে পারেন একটা সই করে চাকরি দিয়ে দেবেন এটা তাঁর অজ্ঞান তাকেই প্রকাশ করে।

সম্পর্কিত খবর