টাইমলাইনবিনোদন

জেনেশুনে ক্ষতি ক‍রছেন নিজের, এই মারাত্মক নেশায় ডুবে রাতের পর রাত জাগেন ‘পদ্ম’ দিয়া চক্রবর্তী!

বাংলাহান্ট ডেস্ক: দৈনিক বিনোদনের সবথেকে জনপ্রিয় মাধ‍্যম সিরিয়াল (Serial)। বাংলা সিরিয়ালের বিষয়বস্তু নিয়ে যতই ট্রোল হোক না কেন দর্শকরা সিরিয়াল ছাড়া থাকতেও পারেন না। তবে সিরিয়াল মানেই যে শুধু কূটকাচালিতে ভরা হবে এমন কোনো মানে নেই। ঐতিহাসিক ঘটনাবলী নিয়ে বা ভক্তিমূলক সিরিয়ালও হয় যা যথেষ্ট জনপ্রিয়। এমনি একটি সিরিয়াল ছিল ‘করুণাময়ী রাণী রাসমণি’ (Karunamoyee Rani Rasmoni)।

জি বাংলার ক্লাসিক সিরিয়ালগুলির মধ‍্যে অন‍্যতম ছিল এই সিরিয়াল। বাংলার ঐতিহাসিক চরিত্র রাণী রাসমণির জীবন কাহিনী নিয়ে তৈরি হয়েছিল সিরিয়ালটি। সঙ্গে উঠে এসেছিল শ্রীরামকৃষ্ণ, শ্রী শ্রী মা সারদা ছাড়াও রাণী রাসমণির বাড়ির সদস‍্যদের ভিন্ন ভিন্ন কাহিনিও।


এই সিরিয়ালের অন‍্যতম চরিত্র ছিলেন রাসমণির বড় মেয়ে পদ্মমণি, যে চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন দিয়া চক্রবর্তী (Diya Chakraborty)। অনেক ছোট বয়সে অভিনয়ে পা রেখেছিলেন তিনি। রাসমণির আগে জনপ্রিয় সিরিয়াল ‘সুবর্ণলতা’তেও দেখা গিয়েছিল তাঁকে। সেখানে সুবর্ণলতার ছোট ননদের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন দিয়া।

মাত্র সপ্তম শ্রেণিতে পড়ার সময়েই তাঁর অভিনয় মুগ্ধ করেছিল দর্শকদের। পদ্মমণি চরিত্রেও অভিনয় প্রতিভার ছাপ রেখেছিলেন দিয়া। রাণী রাসমণি শেষ হয়ে যাওয়ার পর এখন ‘গোধূলি আলাপ’ সিরিয়ালে কৌশিক সেনের বোনের চরিত্রে দেখা যাচ্ছে তাঁকে।

দিদি নাম্বার ওয়ানে এসে নিজের ব‍্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখ খুলেছিলেন দিয়া। সেখানেই তিনি জানান, এক বদ নেশায় আসক্ত হয়ে পড়েছেন তিনি। এর জেরে রাত তিনটে-চারটে পর্যন্তও জেগে থাকেন অভিনেত্রী। ভাবছেন কী সেই নেশা? উত্তরটা হল, অনলাইন গেমস। মোবাইল ফোনে রীতিমতো আসক্ত হয়ে পড়েছেন তিনি।

ভোর রাত পর্যন্ত নাকি পাবজি খেলায় ডুবে থাকেন দিয়া। শরীরের ক্ষতি হচ্ছে জেনেও এই নেশা থেকে মুক্তি পাচ্ছেন না তিনি। এমনকি দিয়ার সহ অভিনেতা অভিনেত্রীরাও জানান, পাবজি খেলায় নাকি তিনি এতই বুঁদ হয়ে থাকেন যে শটের জন‍্য ডাকলেও মাঝে মাঝে তাঁর কানে যায় না।

Related Articles