রাজ্যে শুরু হল ৩৬ হাজার অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া, তোরজোড় শুরু সরকারের

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : পুজোর আগেই অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হল। মুখ্যমন্ত্রী অনেক আগেই জানিয়েছিলেন রাজ্যের বেশ কিছু শূন্য পদে নিয়োগ করা হবে দ্রুত। দ্রুত নিয়োগ প্রক্রিয়া চালানোর জন্য তিনি নির্দেশ দেন আধিকারিকদের। মনে করা হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর সেই নির্দেশের পরই অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী নিয়োগে তৎপর হয়েছে সরকার।

ইতিমধ্যেই অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে হুগলি জেলাতে। শীঘ্রই এই প্রক্রিয়া অন্যান্য জেলাতেও শুরু হয়ে যাবে। প্রায় ১ লক্ষ ১৯ হাজার ৮৪১টি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্র রয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। একজন করে কর্মী ও সহায়িকা রয়েছেন প্রতিটি কেন্দ্রে। রাজ্য সরকার এই কেন্দ্রগুলির শূন্য পদে নিয়োগ করতে চলেছে।

আরোও পড়ুন : LIC কে টক্কর দিতে বাজারে নামছে TATA! আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে দেশের বৃহত্তম আইপিও

নিয়োগ প্রক্রিয়া যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা যায় সেই লক্ষ্যে বেশ কিছুদিন আগে প্রতিটি জেলায় গঠন করা হয়েছিল সিলেকশন কমিটি। কিন্তু সেই সময় পাঁচটি জেলায় সিলেকশন কমিটি ছিল না। নিয়োগ প্রক্রিয়ায় গতি আনতে সম্প্রতি সিলেকশন কমিটি গঠন করা হয়েছে মালদহ, পুরুলিয়া, পূর্ব মেদিনীপুর, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমানে।

আরোও পড়ুন : লক্ষ লক্ষ টাকার বিদ্যুৎ বিল মুকুব, মানবিক সিদ্ধান্ত পশ্চিমবঙ্গ সরকারের! কীভাবে মিলছে সুবিধা?

সংশ্লিষ্ট পদগুলিতে নিয়োগ করা হবে যোগ্যতার বিচারে। জেলাস্তর থেকে নেওয়া হবে অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী নিয়োগের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী আবেদনের ক্ষেত্রে প্রতিটি জেলায় আলাদা করে সিলেকশন কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাই প্রতিটি জেলায় আলাদাভাবে আবেদন প্রক্রিয়া চলবে।

অঙ্গনওয়ারি

অন্যান্য জেলাতেও শীঘ্রই আবেদনের বিজ্ঞপ্তি জারি হবে। রাজ্য সরকার চাইছে দ্রুত এই ৩৬ হাজার শূন্য পদে অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী নিয়োগ করতে। পশ্চিমবঙ্গের নারী, শিশু ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা জানিয়েছেন, দ্রুত সমস্ত পদে নিয়োগ করতে চাইছে রাজ্য সরকার। সেই উদ্দেশ্যেই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর