নিজের নাকতলার বাড়িতে কি কাজ করতেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়? আদালতে ফাঁস করল CBI

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ গত বছর থেকে শিক্ষক কেলেঙ্কারি নিয়ে তোলপাড় রাজ্য। বঙ্গের নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় গত বছর ২৩ জুলাই (Recruitment Scam) রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে (Partha Chatterjee) তার নাকতলার বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে তদন্তকারী সংস্থা ইডি। একই সময়ে গ্রেফতার হন তার বান্ধবী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। তারপর এক বছর পেরিয়ে গেলেও এখনও জেলের চার দেওয়ালের মধ্যেই জীবন কাটছে তাদের।

গোটা এই সময়ের মধ্যে একাধিক বার নানাররকম শারীরিক জটিলতার কারণ দেখিয়ে জামিনের আবেদন করেছেন জেলবন্দি তৃণমূলের প্রাক্তন মহাসচিব। তবে প্রভাবশালী তত্ত্বে মেলেনি কোনও সুরাহা। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার আদালতে সিবিআই (Central Bureau of Investigation) তরফে বিস্ফোরক দাবি করা হয় পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে।

নিয়োগ দুর্নীতিতে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতেই অফিস খুলে ভুয়ো শিক্ষকদের তালিকা তৈরি হয়েছে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। সিবিআই এর কথায়, পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িই ছিল চাকরি বিক্রির হেড অফিস। আলিপুর বিশেষ সিবিআই আদালতে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার দাবি, নিজের নাকতলার বাড়িতে বসেই ভুয়ো শিক্ষকদের লিস্ট তৈরি করতেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী।

আরও পড়ুন: নিয়োগ দুর্নীতি কাণ্ডে ফের জামিন! কে পেল শর্তসাপেক্ষ মুক্তি? তোলপাড় রাজ্য

শুধু তাই নয়! সিবিআই সূত্রে বিস্ফোরক দাবি, এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতিতে কাকে কাকে টাকার বিনিময়ে চাকরি দেওয়া হবে সেই তালিকা খোদ পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কলকাতার বাড়ি থেকেই বানানো হয়েছিল। আর সেই তালিকায় চূড়ান্ত অনুমোদন দিতেন মন্ত্রীমশাই নিজেই। পার্থর বাটিতেই এই কাজ চলত বলে এদিন আদালতে জানিয়েছে CBI.

আরও পড়ুন: ‘আমার শরীর ভালো না, ও থাকলে ভালো হয়…’, আদালতে পার্থের দাবি শুনে ‘থ’ সকলে

অন্যদিকে এদিন ফের আদালতে শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে বিরাট দাবি করে তোলেন জেলবন্দি পার্থ চট্টোপাধ্যায়। গতকাল বিচারপতির কাছে আর্জি জানিয়ে অ্যাসিস্ট্যান্ট চান পার্থ চট্টোপাধ্যায়। আদালতে পার্থবাবুর সওয়াল, ‘আমার শরীর ভাল যাচ্ছে না, অ্যাসিস্ট্যান্ট থাকলে ভাল হয়’। তিনি বলেন, “দিনের পর দিন শরীর খুব খারাপ হয়ে যাচ্ছে। জেলে যদি একজন অ্যাসিস্ট্যান্ট দেওয়া যায়।”

partha jail

পার্থর কথা শুনে বিচারক বলেন, “সেটা জেল ম্যানেজমেন্ট ঠিক করবে।” এরপর ফের পার্থ বলেন, “আপনি বলে দিলে হয়ে যাবে।” পার্থর কথায়, “বাগ কমিটির রিপোর্ট দুই কোর্টই মেনেছে। এরা তা ফলো করছে না কেন…”। উত্তরে বিচারক বলেন, “সেটা এখন বলে কী হবে।” আপাতত আগামী ১৯ অগাস্ট পর্যন্ত প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীকে জেল হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

ওদিকে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় পার্থর মতো একাধিকবার জামিনের আবেদন করেছেন তার বান্ধবী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ও। তবে তারও এখনও জামিন অধরাই রয়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে মডেল অর্পিতার দক্ষিণ কলকাতার ফ্ল্যাট থেকে টাকার পাহাড় উদ্ধারের পর গত বছর ২৩ জুলাই গ্রেফতার হন তিনি।

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর