বিচারককে মনের কথা জানিয়ে দিলেন পার্থ! নিয়োগ দুর্নীতি মামলার শুনানিতে কি এমন হল?

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি (Recruitment Scam) মামলার জের। গত বছর জুলাই মাস থেকে জেলবন্দি প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)। বৃহস্পতিবার আলিপুর আদালতে গেলেও কোর্ট লকআপ থেকেই ভার্চুয়াল মাধ্যমে শুনানিতে যোগ দেন পার্থ। নেপথ্যে লাগাতার বৃষ্টি। সকাল থেকে বৃষ্টির কারণে সশরীরে শুনানিতে হাজির হতে পারেননি পার্থ। এজলাস কক্ষে হাজির করানো হয়নি প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীকে।

   

এদিন প্রেসিডেন্সি জেলের সুপার পার্থের পরবর্তী শুনানি ভার্চুয়াল মাধ্যমে করা হোক, আদালতে এই আবেদন জানান। এরপরই এই প্রসঙ্গে পার্থের বক্তব্য শুনতে চান বিচারক। পার্থকে বিচারকের প্রশ্ন, ‘‘আপনি কি সশরীরে হাজিরা দিতে চান? আপনি যদি ফিজিক্যাল হাজিরা চান তা হলে আমি জেলের আবেদন খারিজ করতে পারি। নয়তো আমি জেলের আবেদন মেনে নিচ্ছি।’’

বিচারকের প্রশ্নে পার্থ জানান, ‘‘স্যার আমি আসতে চাই। হ্যাঁ, আমি ফিজিক্যালি আসব।” বিচারক বলেন, ”ফিজিক্যালি হাজিরা তো ভাল। আপনি পারবেন কি? তাহলে ফিজিক্যাল হাজিরা হলে কিন্তু পরের দিন এজলাস কক্ষেও আসতে হবে।” পার্থ বলেন, ”হ্যাঁ, আমি আসব।”

আরও পড়ুন: বেড়েছে শ্বাসকষ্ট! রাতে শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি মদন মিত্রের, তড়িঘড়ি নেওয়া হল CCU-তে

শুনানিতে বিচারক বলেন, ”জেল থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আপনার হাজিরার আবেদন করা হয়েছে। আজকের আবহাওয়ার জন্য আপনার আইনজীবীর তরফে ভিডিও কনফারেন্সে কোর্ট লক আপ থেকে হাজিরার জন্য আবেদন করা হয়েছে ।” কিন্তু আদালতে আসার তীব্র ইচ্ছা জানিয়ে পার্থ বলেন, ”আমি আদালতে এসেছি। এসে চুপচাপ বসেই আছি।” বিচারক এরপর বলেন আদালতে আসলে এজলাস কক্ষেও আসতে হবে।

partha s

প্রসঙ্গত, পা ফুলে থাকায় গত ২৩ নভেম্বর আলিপুর আদালতে উপস্থিত হয়েও সিঁড়ি দিয়ে উপরে উঠে এজলাস কক্ষে পৌঁছতে পারেননি পার্থ। পরে কোর্টের লকআপ রুমে বসেই তার ভার্চুয়াল মাধ্যমে শুনানির ব্যবস্থা করা হয়। এই কারণেই পার্থের ভার্চুয়াল শুনানি করানোর আবেদন জানানো হয়েছিল। তবে তা পার্থ নিজেই চাইছেন না।