শ্বেতশুভ্র পাহাড়ের গায়ে রোদের ঝিলিক, টেক্কা দেবে টাইগার হিলকেও! সামান্য খরচেই চলে আসুন এই পাহাড়ি গ্রামে

বাংলাহান্ট ডেস্ক : ঘুরতে যেতে কার না ভালো লাগে? ছুটি পেলেই আমরা ঘুরতে বেরিয়ে পড়ি। আমাদের একাধিক প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের অবগত করি কলকাতার কাছের বিভিন্ন ঘুরতে যাওয়ার জায়গাগুলি সম্পর্কে। আজও আমরা আপনাদের এমন একটি জায়গা সম্বন্ধে জানাতে চলেছি যেটি খুব কাছের একটি পাহাড়ি জায়গা। গোটা দেশজুড়েই শীতের প্রকোপ মারাত্মক।

   

একাধিক পার্বত্য জায়গায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে তুষারপাত। তুষারপ্রেমী মানুষেরা ইতিমধ্যেই গিয়ে হাজির হয়েছেন সেই সব জায়গায়। কম খরচে তুষারপাতের আনন্দ উপভোগ করার জন্য অনেক বাঙালি এই সময়টাতে পাড়ি জমাচ্ছেন দার্জিলিং। আপনারা জানেন দার্জিলিংয়ের খুব কাছে একটি জায়গা রয়েছে যেখান থেকে আরও চমৎকার ভাবে কাঞ্চনজঙ্ঘার সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন?

আরোও পড়ুন : লাগবে মাত্র কয়েক মিনিট, মুহূর্তেই হয়ে যাবে গ্যাস বুকিং! ভরসা যোগাচ্ছে WhatsApp, দেখুন কীভাবে

অল্প খরচে আপনারা এই শীতে ঘুরে আসতে পারেন ঋষিহাট থেকে। বেশ কিছু ইউটিউবারের দৌলাতে এই জায়গাটি এখন পরিচিতি লাভ করছে। এই জায়গা থেকে দেখা যায় কাঞ্চনজঙ্ঘার একটি বিস্তৃত অংশ। এখান থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘার শ্বেতশুভ্র রূপ দেখলে আপনার মন বিগলিত হয়ে যাবে। এনজেপি থেকে মাত্র ৮০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ঋষি হাট। জলপাইগুড়ি থেকে গাড়ি নিয়ে সরাসরি আপনারা এখানে পৌঁছাতে পারেন।

view webp 3 1024x767

আবার দার্জিলিং থেকে এই জায়গার দূরত্ব মাত্র ১৬ কিলোমিটার। তাহলে বুঝতেই পারছেন কত সহজে আপনারা এখানে আসতে পারেন। কাঞ্চনজঙ্ঘার অপরূপ রূপ প্রত্যক্ষ করার জন্য বহু মানুষ ভিড় জমান টাইগার হিলে। তবে ঋষিহাটের কাঞ্জনজঙ্ঘার রূপ সত্যিই অবর্ণনীয়। চারদিকে চা বাগানের মাঝে মাথা তুলে দাঁড়িয়ে রয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা। রক গার্ডেন রয়েছে খুব কাছেই। একটি সুন্দর হৃদও রয়েছে এখানে। এই জায়গা থেকে রাতের দার্জিলিং এর শোভাও খুবই মনোরম।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর