টাইমলাইনবিনোদন

স্বপ্নে নিজেকে কবরে শুয়ে থাকতে দেখতেন! আল্লাহর সংকেত পেয়েই হিজাব পরা শুরু করেন সানা

বাংলাহান্ট ডেস্ক: বলিউডি ব‍্যক্তিত্বদের মধ‍্যে যারা যারা ধর্মের পথে হেঁটেছেন তাদের মধ‍্যে সবথেকে উল্লেখযোগ‍্য নাম বোধকরি সানা খান (Sana Khan)। ইন্ডাস্ট্রির অন‍্যতম হট অভিনেত্রী তিনি। উঁহু, একটু ভুল হল। অভিনেত্রী ছিলেন। কেরিয়ারের শীর্ষে থাকাকালীন বলিউড থেকে মুখ ফেরান সানা। রাতারাতি হিজাব গ্রহণ করে মুফতি আনাস সইদকে নিকাও করেন।

তাঁর এই বিপুল পরিবর্তন স্বাভাবিক ভাবেই নজর কেড়েছিল সবার। হঠাৎ কেন এই বদল আনলেন সানা, তা জানার জন‍্য কৌতূহলী হয়েছিলেন অনেকেই। এমনকি কয়েকজন এমনো মন্তব‍্য করেছিলেন, প্রাক্তন প্রেমিক ধোঁকা দিতেই বলিউড ছেড়েছিলেন সানা। দু বছর মুখে কুলুপ এঁটে রাখার পর অবশেষে মুখ খোলেন তিনি।


এক ভিডিওতে সানাকে হিজাব আর হাতে মেহেন্দি পরে থাকতে দেখা গিয়েছে। অভিনেত্রী হয়ে থাকার সময় টুকুকে ‘গতজন্ম’ বলে দাবি করে তিনি বলেন, গতজন্মে তাঁর কাছে সব ছিল। টাকা, নাম, যশ সবকিছু। কিন্তু যেটা ছিল না সেটা হল মনের শান্তি।

সানা বলেন, “আমার কাছে সবকিছু থাকা সত্ত্বেও আমি খুশি ছিলাম না। সময়টা খুব কঠিন ছিল। অবসাদে ভুগতে শুরু করেছিলাম। সংকেতের মাধ‍্যমে আল্লাহর বার্তা দেখতে পেতাম আমি।” তিনি আরো বলেন, ২০১৯ সালে রমজানের সময় প্রায়ই স্বপ্নে একটা কবর দেখতে পেতেন তিনি। আর সেই জ্বলন্ত কবরের মধ‍্যে নিজেকে শুয়ে থাকতে দেখতেন সানা।

সানা বলেন, “আমার মনে হয়েছিল আল্লাহ আমাকে সংকেত দিচ্ছেন যে, আমি যদি নিজেকে না বদলাই তাহলে এটাই আমার অন্ত হবে। আমি খুব চিন্তিত হয়ে পড়েছিলাম। আমার এখনো মনে আছে আমার বদলগুলো। আমি অনুপ্রেরণামূলক ইসলামিক বক্তৃতা শুনতাম। আর একদিন রাতে খুব সুন্দর একটা জিনিস পড়েছিলাম আমি। লেখা ছিল, তুমি চাইবে না যে তোমার শেষদিনটাই তোমার হিজাব পরার প্রথম দিন হোক। ওটা আমার মনের গভীরে গিয়ে ছুঁয়েছিল।”

পরের দিন ছিল সানার জন্মদিন। সেদিন থেকেই হিজাব পরা শুরু করেন তিনি। আর নিজের কাছে প্রতিজ্ঞা করেছিলেন যে জীবনেও হিজাব খুলবেন না। এই নতুন জীবনটা নিয়ে খুব খুশি সানা। পুরনো জীবনে আর কোনোদিন ফিরতে চান না বলেই জানান তিনি।

Related Articles