“বউ দেখতে ভাল হলে টাকা, না হলে…” নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে বাধার মুখে শতাব্দী রায়

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : আবারও বিক্ষোভের মুখে পড়লেন শতাব্দী রায়। এবার তিনবারের সাংসদকে ঘিরে বিক্ষোভ প্রদর্শন করলেন গ্রামবাসীরা। কখনো জল নেই কখনো বাড়ি তৈরি করে দেওয়া হয়নি কখনো আবার রাস্তাঘাট খারাপ এই সমস্ত অভিযোগ তুলে ইতিমধ্যেই বিক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন শতাব্দী রায়। তবে এবারে গ্রামবাসীদের অভিযোগ শুনলে চোখ কপালে উঠবে যে কারো। বউ সুন্দরী হলে তবেই মিলবে সরকারি প্রকল্পের টাকা! শতাব্দীকে সামনে পেয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগে সরগরম মোহাম্মদ বাজার ব্লকের পুরাতন গ্রাম পঞ্চায়েতের লাউজোড়া গ্রাম।

জানা গিয়েছে যে এদিন মোহাম্মদবাজার ব্লকের পুরাতন গ্রাম পঞ্চায়েতের লাউজোড়া গ্রামের প্রচারে এসেছিলেন বীরভূম লোকসভা কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী তথা তিন বারের সাংসদ  শতাব্দী রায়। সাংসদের গাড়ির সামনে এগিয়ে গিয়ে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করেন এক ব্যক্তি। তিনি বলেন, যাদের বউ দেখতে ভাল তারা টাকা পাচ্ছে, আর যাদের বউ দেখতে ভাল নয়, তারা টাকা পাচ্ছে না।” নির্বাচনী প্রচারে এসে গ্রামবাসীদের এই ধরনের চাঞ্চকর অভিযোগের মুখে পড়তে হয়েছে শতাব্দীকে।

আরোও পড়ুন : মাধ্যমিক পাস হলেই পশ্চিমবঙ্গ সরকারের থেকে মিলবে ১৮ হাজার! শুধু লাগবে এই নথি

 স্থানীয়দের দাবি, “ভোট দেবো টাকা নেব”। যদিও এই মন্তব্য প্রসঙ্গে শতাব্দীর বলেন, “যদি কেউ বলে ভোট দেবো টাকা নেব তাহলে এই মন্তব্যের উত্তর কি আমি দেব?” তবে গ্রামবাসীরা কোন স্কিম পায়নি পঞ্চায়েত থেকে সেগুলো দেখবেন বলে জানিয়েছেন শতাব্দী। যারা পার্টি করছে তারা নাকি টাকা পাচ্ছে, অথচ গ্রামের গরিব মানুষেরা কোন টাকা পাচ্ছে না। কেউ আবার ঘরবাড়ি পাচ্ছে না। এমনই বিভিন্ন অভিযোগ উঠে এলো গ্রামবাসীদের মুখ থেকে।

Shatabdi Roy

 তৃণমূলের বিরুদ্ধে ওঠা ভুরি ভুরি অভিযোগ নিয়ে তৃণমূলকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিজেপি। পাল্টা জবাব দিয়েছে তৃণমূল। বেশ কিছু দিন আগেই লোকসভা নির্বাচনের বাদ্যি বেজে গিয়েছে। নির্বাচনী প্রচারের ময়দানে শাসক দল বিগত বছরে নিজেদের সাফল্যের খতিয়ান উল্লেখ করে প্রচার করছে। বিরোধী দলগুলিও শাসক দলের সমালোচনার তীরে বিঁধছে। এরই মধ্যে শাসকদলের নেতাকর্মীদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হচ্ছে গ্রামবাসীদের।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর