যাদবপুরের বিরুদ্ধে চরম পদক্ষেপ সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়ের! এই বিশেষ দাবি করে ঘুম ওড়ালেন র‍্যাগিং র‍্যাকেটের

বাংলা হান্ট ডেস্ক : বিগত কয়েক দিন ধরেই তুলকালাম রাজ্য। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের (Jadavpur University) ছাত্রের মৃত্যুর পিছনে যে রয়েছে র‌্যাগিংয়ের গোপন র‍্যাকেট সে বিষয়ে এক প্রকার সকলেই নিশ্চিত। এবার এই ঘটনার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হল কলকাতা হাই কোর্টে (Calcutta High Court)।

সোমবার যাদবপুরকাণ্ডের সূত্র ধরে বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে র‌্যাগিংয়ের বিষয়ে হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি টিএস শিবজ্ঞানম এবং বিচারপতি হিরণ্ময় ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তরুণ বাম নেতা তথা আইনজীবী সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায় (Sayan Banerjee)। মামলা দায়েরের অনুমতি দিয়েছে আদালত। চলতি সপ্তাহেই মামলাটির শুনানির সম্ভাবনা রয়েছে।

   

বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে র‌্যাগিং, জুনিয়র ছাত্রছাত্রীদের উপর অত্যাচার ঠেকাতে প্রাক্তন সিবিআই ডিরেক্টর আর কে রাঘবনের নামে একটি র‌্যাগিং-বিরোধী কমিটি গঠন করা হয়েছিল। র‌্যাগিং ঠেকাতে সেই কমিটি একাধিক নির্দেশিকা জারি করেছিল। অভিযোগ, ইউনিভার্সিটি গ্র্যান্ট কমিশন-এর অনুমোদিত কোনও বিশ্ববিদ্যালয়েই সেই নির্দেশিকা সঠিক ভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে না। মানা হচ্ছে না কোনও নিয়ম। সেই কারণেই শুধু যাদবপুর নয়, রাজ্যের বিভিন্ন কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে দিনের পর দিন র‌্যাগিং হয়ে চলেছে। যার মর্মান্তিক পরিণতিতে প্রাণ গিয়েছে যাদবপুরের ছাত্রেরও।

sayan 2

র‌্যাগিং-বিরোধী কমিটির নির্দেশিকার বাস্তবায়ন চেয়ে সোমবার মামলা দায়ের করা হয়েছে হাই কোর্টে। মামলাকারীর আবেদন, সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতে ইউজিসি ওই কমিটির নির্দেশিকা মেনে চলার ব্যবস্থা করে, তা নিশ্চিত করা হোক। তবেই কলেজে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের দাপট কমবে। প্রসঙ্গত, যাদবপুরের পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে ইউনিভার্সিটি গ্র্যান্ট কমিশন (ইউজিসি)-এর প্রতিনিধি দল আসবে আগামী বুধবার। ইতিমধ্যেই তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছ থেকে এই ঘটনার রিপোর্ট তলব করেছে।

পিআইএল ফাইল করার পর সায়ন জানান, ‘এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। আমরা চাই এই ঘটনার সঠিক তদন্ত হোক। এরই সঙ্গে এক জন অবসর প্রাপ্ত বিচারপতির নেতৃত্বে একটি স্থায়ী কমিটি গঠন করা হোক। যে কমিটির একমাত্র কাজ হবে ২৪ ঘন্টা র‍্যাগিং-এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করা।’

প্রসঙ্গত, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের হস্টেলে বাংলা বিভাগের প্রথম বর্ষের ছাত্রের মৃত্যু হয় গত বৃহস্পতিবার। ওই ছাত্র বুধবার রাতে মেন হস্টেলের এ২ ব্লকের তিন তলার বারান্দা থেকে নীচে পড়ে যান। বেসরকারি হাসপাতালে তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই পরের দিন ভোরে তাঁর মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত হস্টেলের তিন জন আবাসিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে দু’জন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এবং এক জন প্রাক্তনী।

Avatar
Sudipto

সম্পর্কিত খবর