‘নির্ভীক’ সাংবাদিক অনিন্দ্য গ্রেফতার হতেই তাকে লক্ষ্য করে পচা ডিম বৃষ্টি! দেখুন ভিডিও

   

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ নির্ভীক সাংবাদিক হয়েও তিনিই নাকি কোষেছিলেন প্রতারণার ছক। ফাঁদে ফেলেছিলেন বহু মানুষকে। গতকালই প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার (Arrested) হয়েছেন ইউটিউবার অনিন্দ্য চৌধুরী (Anindya Chowdhury)। বেলঘড়িয়া থেকে তাকে গ্রেফতার করে বাঁশদ্রোণী থানার পুলিশ। সরকারি চাকরির নামে লক্ষাধিক টাকা প্রতারণার অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। বহুদিন থেকেই এই ইউটিউবারের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ জমা পড়ছিল।

নির্ভীক’ সাংবাদিক বলে পরিচিত এই অনিন্দ্য গ্রেফতার হতেই আরেক কাণ্ড। তাকে ঘিরে অভিনব বিক্ষোভে মাতলেন বিক্ষুব্ধ জনতা। কী সেই বিক্ষোভ? মঙ্গলবার রাতে বাঁশদ্রোণী থানার পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর গতকালই আলিপুর আদালতে পেশ করা হয় ইউটিউবারকে। আর সেই আদালতে চত্বরেই তার ওপর ছোড়া হয় পচা ডিম। একের পর এক ক্ষুব্ধ মানুষ তাকে দেখেই ‘চোর’ ‘চোর’ স্লোগান দিতে শুরু করেন। তার সাথেই চলে ডিম বৃষ্টি।

বিজেপি নেতা তথা আইনজীবী তরুনজ্যোতি তিওয়ারি নিজের ফেসবুক থেকে সেই মুহূর্তের একটি ভিডিও পোস্ট করে লেখেন, “এইভাবে কেউ পচা ডিম ছুড়ে মারে? নির্ভীক উত্তরের বিপ্লবী অনিন্দ্য…. একটা চোরের সাথে যা হচ্ছে সেটা অত্যন্ত কম”। নেতার পোস্ট করা সেই ভিডিওর কমেন্ট বক্সে উঠেছে হাসির রোল। সমাজমাধ্যমে রীতিমতো ভাইরাল সেই ভিডিও।

https://www.facebook.com/watch/?v=262307752859272

ঠিক কী অভিযোগ অনিন্দ্যর বিরুদ্ধে?, নিজের ইউটিউব ও সমাজমাধ্যমের পেজ ব্যবহার করে বিভিন্ন সময় সাধারণ মানুষকে হেনস্থা করার পাশাপাশি, মিথ্যে অভিযোগ তুলে তার প্রতারণার ফাঁদ চালাতেন তিনি। সূত্রের খবর, কলকাতা ছাড়াও আশেপাশের একাধিক জেলায় অনিন্দ্যর বিরুদ্ধে গুচ্ছ গুচ্ছ অভিযোগ রয়েছে।

শাসক দল তৃণমূলের এক শ্রেণীর নেতার ছত্রছায়ায় বেড়ে উঠেছিল এই ইউটিউবার। তার বিরুদ্ধে শতাধিক ব্যক্তিকে রেলে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে ‘নির্ভীক উত্তর’ নামে তথাকথিত একটি পোর্টাল চালান অনিন্দ্য। সেই পোর্টালের মাধ্যমে কোনও উপযুক্ত প্রমাণ ছাড়াই একাধিক রাজনীতিক, সাংবাদিক ও সমাজে প্রতিষ্ঠিত ব্যক্তিদের নামে কুৎসা ছড়ানোর বহু অভিযোগ ওঠে তার নামে।

anindya chowdhury

এই অনিন্দ্য চৌধুরী হাওড়ার এক শাসক দলের নেতার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে জানা গিয়েছে। রাজ্যের একাধিক থানায় ইউটিউবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের পাওয়ার পর বহুদিন কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না তার। অবশেষে মঙ্গলবার রাতে রাজ্য পুলিশের হাতে গ্রেফতার হন তিনি।

অন্যদিকে সম্প্রতি, কোনও প্রমাণ ছাড়াই কলকাতা পুরসভার বিজেপি কাউন্সিলর সজল ঘোষের নামে গুরুতর অভিযোগ তোলেন অনিন্দ্য। এদিন তার গ্রেফতারির পর সজল ঘোষ এদিন নিজের ফেসবুক থেকে একটি পোস্ট করে লেখেন, “অনিন্দ্য চৌধুরী নামে এক বিপ্লবী পুলিশের জালে ৷ তার একমাত্র কাজ সাংবাদিক, রাজনীতিবিদদের ব্যক্তিগত মিথ্যা আক্রমণ করে, নিজের নাম ফাটিয়ে, তোলা তোলা।”

Sharmi Dhar
Sharmi Dhar

শর্মি ধর, বাংলা হান্ট এর রাজনৈতিক কনটেন্ট রাইটার। উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর। বিগত ৩ বছর ধরে সাংবাদিকতা পেশার সঙ্গে যুক্ত ।

সম্পর্কিত খবর