কবে হবে শিক্ষক নিয়োগ? এবার বড় ঘোষণা করে দিলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু

বাংলা হান্ট ডেস্কঃ ২০২২ থেকে রাজ্যে নিয়োগ দুর্নীতি (Primary Recruitment) নিয়ে ধুন্ধুমার। আদালতে চলছে একাধিক মামলা আর দীর্ঘদিন ধরে আইনি জটে আটকে রয়েছে একাধিক নিয়োগ। শিক্ষক পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে এখনও আন্দোলন চলছে। এবার নতুন বছরে উচ্চপ্রাথমিক পরীক্ষার্থীদের জন্য সুখবর দিলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু (Education Minister Bratya Basu)। শিক্ষক নিয়োগ বিষয়ে বিরাট মন্তব্য করলেন তিনি।

   

সম্প্রতি উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের (Upper Primary, Primary Recruitment) বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বললেন, কোর্টে জট কাটলে ৭ দিনের মধ্যে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে সাফ জানিয়ে দিলেন তিনি। অর্থাৎ একবার আদালত সবুজ সঙ্কেত দিলেই নিয়োগের ঝুলি খুলবে বলে মনে করা হচ্ছে।

গত বৃহস্পতিবার নিয়োগের দাবি উচ্চপ্রাথমিক চাকরিপ্রার্থীরা কলকাতায় সমাবেশ ও বিক্ষোভ করেন। তাদের দাবি উচ্চ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া দীর্ঘ ৯ বছর ধরে ঝুলে আছে। এই ইস্যুতেই শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু বলেন, আদালতে জট কাটলেই সাত দিনের মধ্যে নিয়োগ দেওয়া হবে।

এদিন বাংলা একাডেমিতে এক সংবাদ সম্মেলনে উচ্চ প্রাথমিকের চাকরি প্রার্থীদের প্রশ্নে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘নিয়োগের গোটা বিষয়টি আদালতে আটকে আছে। আমাদের এখানে কিছুই করার নেই। আমাদের পর্ষদের আইনজীবীরা বিচারকের কাছে আপিল করেছেন। আমরা যদি আদালত এর এই জট কাটিয়ে আনতে পারি, তাহলে তার সাত দিনের মধ্যে নিয়োগ দেওয়া হবে।’

আরও পড়ুন: নতুন অবতারে আসছে শীত! হুড়মুড়িয়ে তাপমাত্রা কমবে দক্ষিণবঙ্গে, চমকে দেওয়া আবহাওয়ার খবর

 

উল্লেখ্য, গত অক্টোবর মাসেই উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে কাউন্সিলিংয়ের নির্দেশ দেয় আদালত। এরপরই তোড়জোড় শুরু করে স্কুল সার্ভিস কমিশন। উচ্চ প্রাথমিকের প্রথম দফা কাউন্সেলিং প্রায় এক মাস আগে শেষ হয়েছে। তবে এখনও শুরু হয়নি দ্বিতীয় পর্যায়ের কাউন্সেলিং। এসএসসি আগেই ঘোষণা করেছিল যে খুব শীঘ্রই দ্বিতীয় দফা কাউন্সেলিং শুরু হবে। তবে এতদিন পেরিয়ে গেলেও তা শুরু না হওয়ায় উঠছে প্রশ্ন।

সম্পর্কিত খবর