চাঁদ থেকে মাত্র ২৫ কিমি দূরে চন্দ্রযান-৩! খুলবে ৪.৫৬ বিলিয়ন বছরের রহস্যের জট, সুখবর শোনালো ISRO

বাংলা হান্ট ডেস্ক : আর মাত্র চারদিনের অপেক্ষা। তারপরই ঐতিহাসিক মুহূর্ত তৈরি করবে ভারত (India)। প্রথমবারের জন্য চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে (South Pole) পা রাখবে ভারতের মহাকাশযান। চাঁদের অজানা-অচেনা সাউথ পোলে দাপিয়ে বেড়াবে রোভার প্রজ্ঞান। ইতিমধ্যেই প্রোপালশন মডিউল ও ল্যান্ডার আলাদা হওয়ার পর থেকে দুই দফায় ল্যান্ডার বিক্রমের (Lander Vikram) গতি কমিয়ে সেটি চাঁদের আরও কাছে নিয়ে আসা হয়েছে।

অবতরণের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ হল ল্যান্ডারের গতিবেগ কমিয়ে আনার প্রক্রিয়া। ভারতীয় সময়ে শনিবার মধ্যরাতে অর্থাৎ রাত ২ টোর সময় দ্বিতীয়বার ডিবুস্টিং অপারেশন সম্পন্ন করেছে চন্দ্রযান ৩। ডিবুস্টিংয়ের পরে বিক্রম ল্যান্ডার চাঁদের উপরে ২৫ x ১৩৪ কিলোমিটার কক্ষপথে চলে এসেছে। অর্থাৎ বর্তমানে এই ল্যান্ডার মডিউল ২৫ কিমি X ১৩৪ কিমি উচ্চতায় চাঁদকে প্রদক্ষিণ করে চলেছে।

এখন জেনে রাখা দরকার যে, ইসরোর এই মিশনের লক্ষ্য কী? ঠিক কী জানার জন্য এত মানুষ অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে আছে? আসলে এই মিশনের মাধ্যমে ইসরো জানার চেষ্টা করছে যে, চাঁদের মাটিতে জল আছে কি না! পাশাপাশি এটাও খুঁজে বার করা হবে যে, চাঁদের মাটিতে ভূমিকম্প কীভাবে হয়! চাঁদের খনিজ মৌল সম্পর্কেও খোঁজ চালাবে রোভার প্রজ্ঞান। এসব ছাড়াও চাঁদ সম্পর্কে আরও অনেক খুঁটিনাটি তথ্য খুঁজে বের করা হচ্ছে যা ভবিষ্যতে আমাদের কাজে লাগবে।

আরও পড়ুন : সুখবর, চলছে কর্মী নিয়োগ! ইন্টারভিউ পাশ করলেই কলকাতা পুরসভায় ২৬ হাজার টাকার চাকর

চাঁদের বয়স পাঁচ মিলিয়ন বছর : কিছুদিন আগেই চাঁদের বয়স সম্পর্কে একটি গবেষণা সামনে এসেছিল যেখানে বলা হয়েছিল যে, সৌরজগতের অস্তিত্বের প্রায় ৫ মিলিয়ন বছর পরে চাঁদের সৃষ্টি হয়। যদিও এর আগে অনুমান করা হয়, সৌরজগৎ গঠনের ১৫০ মিলিয়ন পর চাঁদের সৃষ্টি হয়। আবার কেউ কেউ বলে চাঁদের বয়স ৪.৫২ বিলিয়ন বছর। অন্যদিকে জার্মানির কোলন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা তাদের গবেষণায় দেখেছেন যে সৌরজগৎ তৈরি হয়েছিল প্রায় ৪.৫৬ বিলিয়ন বছর আগে, যেখানে চাঁদের সৃষ্টি হয়েছিল ৪.৫১ বিলিয়ন বছর আগে। এখন সঠিক তথ্য কী সেই বিষয়েও গবেষণা শুরু করতে পারবে ইসরো।

আরও পড়ুন : পুজোর আগেই সুখবর, ফের ৩ শতাংশ বাড়ছে DA! সুবিধা পাবেন এই সরকারি কর্মীরা

chandrayaan

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এদিকে ইসরো জানাচ্ছে, মহাকাশে ভালো আছে বিক্রম। স্বাভাবিক ছন্দেই নিজের কাজ করে চলেছে সে। ইসরোর পরিকল্পনা অনুযায়ী আগামী ২৩ অগস্ট সন্ধ্যা পৌনে ছ’টা নাগাদ চাঁদের মাটিতে অবতরণ প্রক্রিয়া শুরু করতে পারে চন্দ্রযান ৩। উৎক্ষেপনের সময় থেকে চাঁদে পৌঁছানো পর্যন্ত মোট ৪০ দিনের মত সময় নিয়েছে চন্দ্রযান ৩। এদিকে আবার নতুন করে জেগে উঠেছে চন্দ্রযান ২। সে ক্রমাগত সিগন্যাল পাঠাচ্ছে ৩-কে। ইতিমধ্যেই তার পাঠানো সংকেতের মাধ্যমে ইসরো জানতে পেরেছে যে, চাঁদের যেখানে বিক্রমের ল্যান্ড করার কথা ছিল সেখানে পাথর আছে। সেই অনুযায়ী বদলানো হয়েছে ল্যান্ডিং স্পট।