মর্মান্তিক! বাবার শেষকৃত্য করার আগেই মৃত্যু ছেলের, শেষ যাত্রার আয়োজন করার সময় করুণ পরিণতি

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ভগবান কারও জীবনে এতো কষ্ট না দিক! এক পরিবারের মৃত্যুর খবর শুনে শোকাহত পুরো গ্রামবাসী। বুধবার সমাজসেবক বেণুধর মন্ডল এবং তার বাবা একই দিনে মারা গেছেন। একটি মর্মান্তিক দুর্ঘটনার পর, ছেলের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। হৃদয় বিদারক এই ঘটনাটি ঘটেছে ওড়িশার (Odisha) কোরাপুট জেলার কামতা গ্রামে।

   

বাবার দেহ দাহের ব্যবস্থা করার সময় ২৭ বছর বয়সী এক যুবকের মৃত্যু হয়। দুর্ঘটনাটি কিভাবে ঘটেছিলো? সিংপুর থানার এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘বুধবার বেলা ১টা নাগাদ বেণুধর মন্ডলের ৬৭ বছর বাবা তার বাড়িতে মারা যান। তারপর বেণুধর মন্ডলের পরিবার শেষকৃত্যের জন্য তার বাবার মৃত দেহ কামতা গ্রামে নিয়ে আসেন। বাড়িতে আসেন আত্মীয়জনেরা। যখন পরিবারের লোকেরা দাহর ব্যবস্থা করার জন্য ব্যস্ত, তখন বেণুধর মন্ডল কোনো কাজে বাড়ির পিছনে দিকে গেলে, সেই মুহূর্তেই একটি গাছের ডাল তার মাথার উপর পড়ে’।

গাছের ডাল মাথার উপর পড়াই বেণুধর মন্ডল গুরুতর আঘাত পেয়েছিলো। ওদিকে তাঁর বাবার দেহ বাড়িতে রাখাই ছিলো কি, তাকে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বড়িগুম্মার কমিউনিটি হেলথ সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কিছুক্ষনের মধ্যেই সেখানে ডাক্তাররা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন : শাসকদলের সাংসদের বাড়ি থেকে উদ্ধার টাকার পাহাড়! গুনতে গিয়ে খারাপ হয়ে গেল মেশিন

ey 83

পুলিশ অফিসার বলেছেন, ‘বাবার মৃত্যুর পর ছেলের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পরে পুরো এলাকায়। পরিবার এবং এলাকাবাসীর মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। পরিবারের সদস্য, স্বজনেরা চোখের জলে লাশ দাহ করেন’। পুলিশ অফিসার আরও বললেন, ‘বাবা ও ছেলে দুইজনের মৃত্যু এবং পরিবারের ব্যাক্তিগত দুঃখের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়।