টাইমলাইনভাইরাল

দাগ ছোপ হীন ফর্সা ত্বক মাত্র ১০ মিনিটেই !

বাংলা hunt ডেস্ক : ত্বক ফর্সা হলেও কোথাও না কোথাও খুঁত থেকেই যায় । হাত, কনুই, হাঁটু, আন্ডারআর্মস ইত্যাদি জায়গা গুলিতে অনেকেই কালো দাগ ছোপের সমস্যায় ভোগেন । যে কারণে ইচ্ছা থাকলেও স্লিভলেস ব্লাউজ বা টপ বা কুর্তি পড়তে গিয়ে অনেকেই পড়তে পারেন না। এই অবাঞ্চিত কালো দাগ গুলি সব সৌন্দর্যই বলতে গেলে মাটি করে দেয়। তাই এই কালো দাগ ছোপ সহজেই তুলতে আপনাকে বলে দেওয়া হলো কিছু ঘরোয়া টোটকা।

আপেল: ত্বকের যত্নে আপেলের গুণের কথা না জানলে এবার জেনে নিন। কারণ এই আপেল দিয়েই সহজে দূর করা যায় এইসব অবাঞ্চিত কালো দাগ। কিভাবে ? তা বলে দেওয়া হলো আপনাকে। আপেল ভালো করে বেটে বা ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরি করে ১০ মিনিট লাগিয়ে রাখুন স্থানগুলোতে। খুব শীঘ্রই পরিবর্তনটা নিজেই দেখতে পাবেন।

কমলা লেবুর খোসা: কমলা লেবুর খোসায় আছে সাইট্রিক এসিড। যা মুখের বিভিন্ন দাগসহ দূর করে থাকে অন্যান্য দাগও। কমলা লেবুর খোসা একদম শুকিয়ে গেলে তা বেটে পেস্ট করে নিন। তারপর দু চামচ কমলালেবুর শুকনো খোসার পেস্ট ও ২ চা চামচ গোলাপজল মিশিয়ে কালো স্থানগুলোতে ১০ মিনিট ব্যবহার করে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ১দিন ব্যবহার করে দেখুন। তফাৎ আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন ।

দুধ: ত্বককে সুন্দর করে তুলতে কোনো বিকল্প নেই দুধের। কথিত আছে প্রাচীন গ্রিসে রাণীরা তাদের ত্বকের কালো দাগ দূর করতে দুধ ব্যবহার করতেন। কোলো দাগ পড়া স্থানগুলোতে সপ্তাহে ২ দিন দুধ ম্যাসাজ করলে কেটে যাবে কালচে ভাব।

লেবু: কনুই, হাঁটু, আন্ডার আর্মসের কালচে দাগ দূর করতে লেবুর কোনো বিকল্প নেই । তবে লেবুতে প্রচুর আসিড আছে। তাই কালচে জায়গা লিতে লেবু ঘষার পর ঠান্ডা জল দিয়ে জায়গাটি ধুয়ে লোশন লাগাতে ভুলবেন না।

নারকেল তেল: যুগের পর যুগ ত্বক উজ্জ্বল করতে ব্যবহৃত হয়ে আসছে তেল বিশেষ করে নারিকেল তেল।স্নানের ১০ মিনিট আগে কালচে দাগ পড়া স্থানগুলোতে তেল ম্যাসাজ করলে ধীরে ধীরে ময়লা কেটে যাবে। অবাঞ্চিত কালো দাগ চলে যাবে।

Back to top button
Close