ভারতে রবিবারেই ছুটি থাকে কেন, নেপথ্যে লুকিয়ে আছে একটি মানুষের মরণপণ লড়াই

বাংলাহান্ট ডেস্ক : গোটা বছর আমরা যেমন অপেক্ষা করে থাকি আমাদের প্রিয় দুর্গোৎসবের জন্য, ঠিক তেমনই গোটা সপ্তাহ আমাদের অপেক্ষা করতে হয় রবিবারের জন্য। রবিবার মানেই ছুটির দিন। গোটা সপ্তাহের ক্লান্তি শেষে এই একটা দিন আমরা মনের মতো করে কাটাতে পারি। আমাদের দেশে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শুরু করে অফিস-কাছারি সব বন্ধ থাকে রবিবার।

রবিবার মানেই শুধু আয়েশ আর জমিয়ে পেট পুজো।কিন্তু আপনারা জানেন ঠিক কবে থেকে ভারতে রবিবার ছুটির প্রচলন শুরু হয়? ব্রিটিশ আমলে শ্রমিকদের কারখানায় সপ্তাহে ৭ দিনই কাজ করতে হত। ভারতীয় শ্রমিকরা সপ্তাহে একদিনও ছুটি পেতেন না। সপ্তাহের একদিন অর্থাৎ রবিবার শুধুমাত্র ছুটি পেতেন ব্রিটিশ আধিকারিকরা। 

   

আরোও পড়ুন : সাবধান! তোলপাড় হবে দিঘা, ধেয়ে আসছে তুমুল ঝড়-বৃষ্টি; ভয়াবহ আপডেট আবহাওয়া দপ্তরের

ব্রিটিশরা রবিবার করে চার্চে যেতেন প্রার্থনা করার জন্য। সেজন্য রবিবার তাদের ছুটি থাকত। অন্যদিকে একদিনও ছুটি না পাওয়া ভারতীয় শ্রমিকরা রীতিমতো শারীরিক ও মানসিকভাবে ভেঙে পড়ছিল। এভাবে একনাগারের কাজ করা তাদের পক্ষে রীতিমত অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছিল। শ্রমিক নেতা শ্রীনারায়ণ মেঘাজি লোখান্ডে বুঝতে পারেন শ্রমিকদের এই কষ্ট।

why sunday is holiday in india.jpg

এরপর তিনি সপ্তাহে একদিন ছুটির জন্য আবেদন করেন ব্রিটিশ সরকারের কাছে। লেখান্ডের সেই আবেদন যদিও প্রত্যাখ্যান করে দেয় ব্রিটিশ সরকার। লেখান্ডে কিন্তু ছেড়ে দেওয়ার পাত্র ছিলেন না। শ্রমিকদের স্বার্থে তিনি ৭ বছর লড়াই চালান। এরপর ব্রিটিশ সরকার বাধ্য হয়ে ভারতীয় শ্রমিকদের জন্য রবিবার ছুটি ঘোষণা করে ১৮৯০ সালের ১০ জুন। সেই থেকেই ভারতে রবিবার করে সাপ্তাহিক ছুটির রেওয়াজ চালু হয়।

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর