‘মমতার পুলিশের নিরাপত্তায় রয়েছে শাহজাহান’, সন্দেশখালি নিয়ে বিস্ফোরক শুভেন্দু

বাংলা হান্ট ডেস্ক : চলতি সপ্তাহের শুরুতেই হাইকোর্ট (Calcutta High Court) জানায়, সন্দেশখালি (Sandeshkhali) কাণ্ডের মাস্টারমাইন্ড শাহজাহানকে (Shahjahan Sheikh) গ্রেফতারির ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই। সেই নির্দেশের পরপরই শাসকদলের তরফে দাবি করা হয় আগামী এক সপ্তাহের মধ্যেই গ্রেফতার হবেন মূল অভিযুক্ত ‘শাহজাহান’। আর এবার শুভেন্দুর (Suvendu Adhikari) দাবি, ইতিমধ্যে পুলিশের ‘নিরাপদ হেফাজতে’ রয়েছেন সন্দেশখালির তৃণমূল নেতা।

   

এইদিন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক কার্যত বোমা ফাটিয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। কোনও রাখঢাক না রেখেই শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছেন, মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকেই পুলিশি হেফাজতে আছেন শাহজাহান। পুলিশের সঙ্গে ‘চুক্তি’ও হয়েছে তার। এমনকি উডবার্নের একটি বিছানাও প্রস্তুত করা হয়েছে তার জন্য। এই খবরের পর থেকেই তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি।

যদিও তৃণমূলের তরফে থেকে সাফ অস্বীকার করা হয়েছে এই দাবি। এইদিন তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক তথা মুখপাত্র কুণাল ঘোষ পাল্টা কটাক্ষ শানিয়ে বলেন, ‘এতই যখন জ্ঞান, তাহলে শুভেন্দুই বলে দিন ঠিক কোথায় রাখা হয়েছে শাহজাহানকে।’ যদিও শুভেন্দুর বক্তব্যেই সত্যতা খুঁজছে বাংলার মানুষ।

আরও পড়ুন : চার বছরে ৪২টি মামলা, তবুও নেই পলাতক তকমা! শাহজাহান কেসে রাজ্য পুলিশের পর্দা ফাঁস

 

বুধবার শুভেন্দু নিজের এক্স হ্যান্ডেলে লেখেন, ‘সন্দেশখালির বজ্জাত শেখ শাহজাহান মঙ্গলবার রাত ১২টা থেকে মমতা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। মঙ্গলবার রাত ১২টা নাগাদ উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালির বেড়মজুর-২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা থেকে শাহজাহানকে ধরেছে পুলিশ। তার আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুলিশের সঙ্গে প্রভাবশালীদের মধ্যস্ততায় ‘চুক্তি’ করেছেন।’

আরও পড়ুন : ‘মন্ত্রীরা তো ভয়ে ঢুকলই না’, তবে কোথায় গেছিলেন পার্থ-সুজিত? সন্দেশখালির মহিলাদের কথায় শোরগোল

img bjp chief sukanta ma 2 1 p9ceplll

এখন প্রশ্ন উঠবে ঠিক কোন চুক্তির কথা বলছেন শুভেন্দু? তার জবাবও তিনি নিজেই দিয়েছেন। বিরোধী দলনেতা জানিয়েছেন, ‘চুক্তি হয়েছে পুলিশ এবং বিচার বিভাগীয় হেফাজতে থাকাকালীন তার (শাহজাহানের) যথাযথ যত্ন নেওয়া হবে। কারাগারে থাকাকালীন তাকে বিলাসবহুল হোটেলের সুবিধা দেওয়া হবে এবং একটি মোবাইল ফোনও হাতে পাবেন।এমনকি, উডবার্ন ওয়ার্ডের (এসএসকেএম হাসপাতালে) একটি শয্যা তার জন্য প্রস্তুত এবং খালি রাখা হবে। যদি তিনি কিছু সময় সেখানে কাটাতে চান।’ শুভেন্দুর এই বক্তব্যের পর থেকেই তোলপাড় শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

 

Moumita Mondal
Moumita Mondal

মৌমিতা মণ্ডল, গ্র্যাজুয়েশনের পর শুরু নিয়মিত লেখালেখি। বিগত ৩ বছরেরও বেশি সময় ধরে লেখালেখির সাথে যুক্ত। প্রায় ২ বছর ধরে বাংলা হান্ট-এর কনটেন্ট রাইটার হিসেবে নিযুক্ত।

সম্পর্কিত খবর