ব্ল্যাক বোর্ডে ‘জয় শ্রীরাম’! ছাত্রকে বেধড়ক পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠালেন শিক্ষক, দায়ের হল FIR

বাংলা হান্ট ডেস্ক : ফের স্কুলে ধর্ম নিয়ে শুরু হল বিতর্ক। কয়েক দিন আগেই মুসলিম হওয়ার অপরাধে উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) এক স্কুলে ছাত্রকে একের পর এক চড় মারার ভিডিও মারাত্মক ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। তা নিয়ে যথেষ্ট জল ঘোলা হয়। আর এবার ভূস্বর্গের (Kashmir) এক স্কুলে ছাত্রকে মারধর করায় এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে দায়ের হল এফআইআর (FIR)।

কী হয়েছিল ঘটনা? জানা যাচ্ছে, বিতর্কিত ওই ঘটনাটি ঘটেছে জম্মু কাশ্মীরের কাঠুয়ার একটি স্কুলে। অভিযোগ, স্কুলের ক্লাসরুমের ব্ল্যাকবোর্ডের মধ্যে চক দিয়ে বড় বড় করে ওই ছাত্র লেখে ‘জয় শ্রী রাম’ (Jai Shri Ram)। এ কথা জানতে পেরেই ছাত্রটিকে বেধড়ক মারধর করেন ওই শিক্ষক।

   

students

হাসপাতালে ভর্তি হয় নিগৃহীত ছাত্র : এদিকে বেধড়ক মারের জেরে গুরুতর আহত হয় ওই স্কুলছাত্র। জানা গিয়েছে, সে ওই স্কুলের দশম শ্রেণির পড়ুয়া। মার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় একটি হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়। এরপর ডাক্তাররা জিজ্ঞাসাবাদ করতেই আসল ঘটনা প্রকাশ পায়।

শোরগোল এলাকা জুড়ে : এরপরই ঘটনাকে কেন্দ্র করে জোর উত্তেজনা ছড়ায় গোটা এলাকা জুড়ে। মুহূর্তের মধ্যে খবর ছড়িয়ে পড়ে সর্বত্র। স্থানীয়রা এসে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন ওই স্কুল চত্বরের বাইরে। পরিস্থিতি হয়ে ওঠে বেশ জটিল।

আরও পড়ুন : ভাষণ চলাকালীন অজ্ঞান হয়ে পড়ে গেলেন এক ব্যক্তি! তারপর মোদি যা করলেন, দেশজুড়ে হচ্ছে প্রশংসা

উত্তর প্রদেশেও ঘটে এমনই ঘটনা : কয়েক দিন আগেই উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরের একটি বেসরকারি স্কুলে নামতা বলতে না পারায় এক মুসলিম পড়ুয়াকে মারধর করা হয়। শিক্ষিকার নির্দেশে সহপাঠীরাই তাকে এসে এক এক করে চড় মারে। সেই শিক্ষিকাকে আরও বলতে শোনা যায় যে, মুসলিম মহিলারা তাঁদের সন্তানদের পড়াশোনার দিকে খেয়াল রাখেন না। সেই জন্যই মুসলিম পড়ুয়াদের পড়াশোনার মান এত খারাপ। ওই গোটা ঘটনাটি ক্লাসরুমে বসেই এক যুবক রেকর্ড করেন আর তারপরই তা ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে শোরগোল শুরু হয়েছে গোটা দেশে।

Avatar
Sudipto

সম্পর্কিত খবর