টাইমলাইনপশ্চিমবঙ্গরাজনীতি

‘মমতা বললে বিধায়ক পদ ছেড়ে দেব’, ফের বিস্ফোরক মনোরঞ্জন ব্যাপারী

বাংলাহান্ট ডেস্ক : বলাগড়ের তৃণমূলের বিধায়ক তিনি। রাজনীতির ময়দানে রাশভারি কোনও নাম না হলেও বিস্ফোরক মন্তব্য করে মাঝেমাঝেই সংবাদের শিরোনামে উঠে আসেন মনোরঞ্জন ব্যাপারী (Manoranjan Byapari)। এবার নিজের দল সম্পর্কেই করে ফেললেন বিস্ফোরক মন্তব্য। তিনি বললেন, ‘সুবিধাভোগী, ধান্দাবাজরা আবার দলে ফিরছেন। বিজেপিতে গিয়েও আবার ফিরে আসছেন। মমতা বললে বিধায়ক পদই ছেড়ে দেব।’

বিজেপিতে গিয়েছিল এমন ১৫৩ জনকে আমি গুনে রেখেছিলাম

বলাগড়ের তৃণমূল বিধায়ক আরও বলেন, ‘আমি লেখালিখি জগতের মানুষ। বিজেপিকে রোখার জন্যই বিধায়ক হতে হয়েছিল। তখন বিজেপিতে গিয়েছিল এমন ১৫৩ জনকে আমি গুনে রেখেছিলাম, এরপর আর গুনতে পারিনি। যারা সুবিধাভোগী, যারা ধান্দাবাজ তারা এটাই করে এসেছে। এটাই সত্যি।’ এরপরেই নিজের ক্ষোভের কথা জানান তিনি। তিনি বলেন,’ দলের শীর্ষনেতারা ধন্দাবাজদের নিয়েই যদি সিদ্ধান্ত নেবে তাহলে আমাদের থেকে আর কী হবে?’ এমনকি তিনি দাবি করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বললেই বিধায়ক পদই ছেড়ে দেবেন।

২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল কংগ্রেসে (TMC) ভাঙন ধরিয়ে দেয় বিজেপি (BJP)। মুকুল রায় দিয়ে শুরু হয় দলবদল। তারপর একে একে শুভেন্দু অধিকারী ( Suvendu Adhikari), রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় (Rajib Banerjee), অর্জুন সিং (Arjun Singh), শোভন চট্টোপাধ্যায়ের (Sovan Chatterjee) মতো হেভিওয়েট নেতারাও পদ্মফুলের আশ্রয়ে ঝাঁপ দেয়। নিচের তলার নেতাদের মধ্যে তো বটেই, আস্তে আস্তে বহু শীর্ষ নেতাই সবুজ শিবির ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে ভেড়েন।

তবে দলে ভাঙন ধরানোই সার হয়েছে বিজেপির। তৃণমূলের ভোটে বিশেষ কিছুই রদল-বাদল করতে পারেনি তারা। নির্বাচনের ফলে বিরাট সংখ্যক আসন দখল করে তৃতীয়বারের জন্য ক্ষমতায় আসে তৃণমূল। চুরমার হয়ে যায় দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)-শুভেন্দু অধিকারীদের ‘ডবল ইঞ্জিন’ সরকার গড়ার স্বপ্ন। এরপর একে একে তৃণমূলে ফিরেছেন মুকুল রায়, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, সব্যসাচী দত্ত, অর্জুন সিংয়ের মতো দল-বদলুরা। এমনকি কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে শোভন-বৈশাখী জুটিও নাকি ফিরতে চলেছেন কালীঘাটে। তাহলে কি এঁদেরই সুবিধাভোগী, ধান্দাবাজ বলে কটাক্ষ করলেন বিধায়ক মনোরঞ্জন ব্যাপারী (Manoranjan Byapari)?

Related Articles