পশ্চিমবঙ্গের একমাত্র এই হলেই চলছে ”দ্য কেরালা স্টোরি”, কেমন হচ্ছে দর্শক?

   

বাংলাহান্ট ডেস্ক : দ্য কেরালা স্টোরি (The Kerala Story) মুক্তি পেয়েছে গত ৫ই মে। এরপর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) গত ৮ই মে এই ছবি প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। নিষেধাজ্ঞার পর বিভিন্ন মহল থেকে শুরু হয় আলোচনা পর্যালোচনা। এরপর ছবি নির্মাতারা দ্বারস্থ হন সুপ্রিম কোর্টের।

সুপ্রিম কোর্ট ছবি প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞার ক্ষেত্রে স্থগিতাদেশ জারি করে ১৮ই মে। এরপর পরিচালক সুদীপ্ত সেন ও ছবির অভিনেত্রী অদা শর্মা কলকাতায় আসেন ছবির প্রচারে। নিষেধাজ্ঞা ওঠার পরেও পশ্চিমবঙ্গে এই ছবি হল না পাওয়ায় তারা রীতিমত ক্ষোভ প্রকাশ করেন। দীর্ঘদিন পর এরপর বাংলায় দ্যা কেরালা স্টোরির প্রদর্শন শুরু হয়েছে।

গোটা বাংলায় একমাত্র বনগাঁর শ্রীমা হলে এই ছবিটি চলছে। দ্য কেরালা স্টোরি প্রায় ২০০ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে মুক্তির ১৯ দিনের মধ্যে। বনগাঁর এই হলে এই ছবি কত টাকার ব্যবসা করেছে? শ্রীমা হলের ম্যানেজার স্বপন দাস বলছেন, “ব্যবসা তেমন কিছু হয়নি। যে পরিমাণ হওয়ার কথা ভাবা হয়েছিল সেটা হচ্ছে না।”

স্বপন বাবু জানিয়েছেন, “নিষেধাজ্ঞা ছিল এতদিন। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের সম্মান জানিয়ে এই ছবির প্রদর্শন বন্ধ ছিল। তবে নিষেধাজ্ঞাকে উঠে যাওয়ার পর শুরু হয়েছে শো। তবে খুব যে আহামরি লোক আসছেন সেটা কিন্তু নয়। দর্শক এমনি আসছেন কিছু। তবে যে পরিমাণ ধারণা করা হয়েছিল সেই পরিমাণ দর্শক আসছেন না।”

kerala story 1

তবে কি এই ছবি বন্ধ করে দেওয়া হবে? খানিকটা মৃদু সুরে তার জবাব সেটা অনেকটা নির্ভর করে পরিবেশকদের উপর। এই প্রসঙ্গে পরিবেশক শতদীপ সাহার মন্তব্য, “আমি জানিনা বনগাঁর ঘটনা। কোনও প্রিন্ট দিইনি আমি। বলতে পারব না কে কী করছে। কোথায় এই ছবি চলছে আমি নিজেই জানিনা।”

Avatar
Soumita

আমি সৌমিতা। বিগত ৩ বছর ধরে কর্মরত ডিজিটাল সংবাদমাধ্যমে। রাজনীতি থেকে শুরু করে ভ্রমণ, ভাইরাল তথ্য থেকে শুরু করে বিনোদন, পাঠকের কাছে নির্ভুল খবর পৌঁছে দেওয়াই আমার একমাত্র লক্ষ্য।

সম্পর্কিত খবর